অবুঝ বউ part-1

অবুঝ বউ

Sûmøñ Ãl-Fãrâbî

১ম পর্ব

সবে মাত্র চাকরিতে জয়েন করছি । আর এর মাঝেই শুরু হলো আম্মুর বিয়ে কর বিয়ে কর ।
কেবল নিজের পায়ে একটু একটু করে দাড়াতে শিখছি এর মাঝেই আবার পায়ে রশি দিয়ে ফালাই দেওয়ার জন্য বিয়ে দিচ্ছে ।
বিয়ে দিচ্ছে না । দিয়েই দিছে ।
হ্যা আজ আমার বিয়ে হলো। আর এখন আমি বাসর ঘরের সামনে দাড়িয়ে আছি । ।
ভিতরে যাবো কি না সেটাই চিন্তা করছি ।
চিন্তা করে লাভ নাই । আমার রুম আমার বউ আমাকেই তো যেতে হবে ।
অবশেষে রুমে প্রবেশ করলাম।
ওমা একি?
এটা কি বউ?
কিন্তু কি করছে ?
এতো বসে বসে চকলেট খাচ্ছে ।
আমি যে রুমে আসছি সেটা মনে হয় বুঝতেই পারে নি।
তাই হালকা করে একটু শব্দ করলাম।
বউ একবার আমার দিকে তাকিয়ে আবার চকলেট খাওয়া শুরু করলো । । ।

বউয়ের কোনো রিয়েক্ট এ নাই । মনে হচ্ছে রুমটা ওর বাসাটাও ওর। আর আমি ওর পরিচিত একজন ।

একটু জোরে বললাম ।
” এই মেয়ে কি করছো?
এই কথা শুনে মেয়ে ভ্যা ভ্যা করে কান্না শুরু করে দিলো।
” এই কান্না করছো কেন ?
কান্না করেই যাচ্ছে । কোনো কথা বলছে না ।
এটা দেখে মেজাজ আরো খারাপ হয়ে গেল । এমনিতেই কান্না সহ্য হয় না তার উপর আবার ঢংগী কান্না ।
এবার একটু রেগে গিয়েই বললাম।
” কান্না করার কারন কি? এমন কান্না করছো কেন ?

এই কথা বলার পর কান্না ধরন কয়েক গুণ বেড়ে গেল।
বুঝলাম জোরে শব্দ করে কথা বলা যাবে না । তাই ধীরে ধীরে কথা বলতে লাগলাম ।
অনেক সময় পর কান্না শেষ হলো।
” তুমি কান্না করলে কেন ?
” কেউ কখনো আমার সাথে এভাবে কথা বলে নি ..
” কি??
” হুম ।
” আমার সাথে কেউ রেগে কথা বলে না । আমি ভয় পাই তারপর কান্না করি ।
” এটা কোন ভ্যাবলি ? আল্লাহ আমি ভেবেছি বউ পাবো কিন্তু একটা ভেবলি পাবো এটা আশা করি নি ।
” এই ভেবলি মানে কি?
” হায় মোর খোদা এটাই কি? ভেবলি মানে জানে না ?
” বলো না
” তোমায় কেউ কোনো দিন ভেবলি বলে নি ?
” না। আমায় কেন ভেবলি বলবে ?
” যারা কথায় কথায় ঢংগী গুলোর মতো মায়া কান্না করে তাদের ভেবলি বলে ।
” কি আমি ঢংগী?
” কোনো সন্দেহ ছাড়াই।
” কি?
আবার কান্না করা শুরু করলো ।
এই পিচ্চি কে নিয়ে তো মহা ঝামেলায় পড়লাম । কোনো কথাই বলা যায় না ।
” এই চুপ করো প্লিজ । কান্না করো না। আমার অনেক বোরিং লাগে ।
তবুও কান্না থামছে না।
এবার জোর গলায় বললাম ।
” কান্না করলে রুম থেকে বের করে দিবো । তারপর দরজা লক করে দিবো। সারারাত বাইরে থাকতে হবে ।
এই কথা বলে তো পড়লাম আর এক ঝামেলায় ।
এখন কান্না তো বেরে গেল সাথে আবার ওর আব্বুকে ডাকতে লাগলো ।
” আব্বু আমি তোমার কাছে যাবো। এরা ভালো না এরা আমায় মারছে । আমি থাকবো না ।
কি জিনিস মাইরি ? মারলাম কখন?
অনেক চেষ্টা করলাম কান্না থামানোর। কিন্তু কে শোনে কার কথা । কান্না ননস্টপ রেডিও এর মতো চলতে আছে ।
কান্না থামাতে ব্যার্থ হয়ে অবশেষে আম্মুর কাছে গেলাম ।
এরপর আম্মু কে নিয়ে আসলাম।
আম্মু এসে আমায় উধমা বকলো। তারপর ওকে নিয়ে রুমে চলে গেল ।
হায়রে কপাল ? মানুষ বাসর ঘরে বিড়াল মারে। আর আমি ? বউয়ের কান্না থামাতেই পারলাম না ।
এমন কপাল কয় জনের আছে ।
মেয়েটা দেখতে অনেক কিউট । প্রথম যখন আম্মু আমায় ওর ছবি দেখায় তখন প্রথম দেখেই হ্যা বলে দিয়েছি। পরবতী তে আর ওকে দেখতেও যাই নি ।
এতোটাই পছন্দ হয়েছিল ।
কিন্তু এখন তো দেখছি মেয়ে ওর শিশু কালেই পড়ে আছে ।
এখন তো ভয় হচ্ছে চিটিংবাজ শ্বশুর মশাই না বলে আমার ঘারে কি অটিজম মেয়ে চাপালো নাকি?
শালা আগে আম্মুর কথা শুনে দেখা করতে যাওয়াই ভালো ছিলো।
কেন যে গেলাম না ?
সব কিছুতেই বেশি বেশি …
এখন তো আর করার কিছুই নাই বসে বসে কপাল চাপড়ানো ছাড়া ।
না ভালো করে চেক করতে হবে আসলেই অটিজম নাকি?
অনেক ক্লান্ত ছিলাম তাই বিছানায় শুয়ে পড়লাম আর কিছুক্ষণের মধ্যে ঘুমিয়ে পরলাম । ঘুমানোর আগে দরজা লক করা হয় নি ।


সকাল বেলা কেউ একজন আমায় ডাকছে
” এই উঠেন আপনার আম্মু ডাকে
” কে?
” আমি
” ওহহ ভেবলি।
” কি? আমি ভেবলি?
” তা নয়তো কি?
” কান্না করবো কিন্তু ?
” এই না । আচ্ছা একটা কথা বলি
” হুম বলো
” কেউ যদি বলে বাসর রাত কেমন কাটলো কি বলবে ?
” বলছে তো আমায়
” কে বলছে ?
” সকালে আমার ভাবি ফোন করছিল
” কি বলছে ?
” ঐ যে ঐটা বলছে বাসর রাত কেমন কাটলো
” তুমি কি বলছো ?
” বলছি তোমার আম্মুর সাথে ঘুমাইছি।
” তারপর ভাবি কি বললো?
” বুঝলাম না ভাবি শুধু হাসলো ।
” আর কিছু বলে নি ?
” না। আচ্ছা বাসর রাতে কি করে ?
” মানে ?
” বাসর রাত মানে কি?
” তুমি প্লিজ আর আমার সামনে এখন এসো না । নয়তো আমায় পাবনা যেতে হবে সিয়র।
” ওহহ ঘুরতে যাবে ? আমিও যাবো
” আম্মু একে নিয়ে যাবে নয়তো এ তো তোমার ছেলেকে পাগল বানিয়ে ছাড়বে ।
” তোমার আম্মু কে সাথে নিয়ে যাবে ?
” তুমি কি বাসায় ও সবার মাথা খেতে এভাবে ?
” কেউ মাথা খেতে পারে ?
” তুমি তো রাক্ষসী তাই খেতে ও পারো।
” কি আমি রাক্ষসী?
আবার কান্না শুরু । আমি আব্বুর কাছে যাবো। এরা আমায় মারে। এরা ভালো না । আব্বু আব্বু …….
……….
………
……..
…….
……
…..
….

..
.
To be continue
এটা শেষ হলে নতুন গল্প দিবো ইনশাআল্লাহ,,,,

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *