নীল চুড়ি | Romantic love story রোমান্টিক ভালবাসার গল্প

নীল চুড়ি
,
Sûmøñ Ãl-Fãrâbî
.
.
নীলাকে শুধু একটা নজর দেখার জন্য রোজ ওর কলেজের সামনে এসে দাড়িয়ে থাকি,,,,,
মেয়েটাকে অনেক দিন থেকে ভালোবাসি ,,,,
কিন্তু সাহসের অভাবের কারণেই আজ পর্যন্ত ভালোবাসি কথাটা বলে ওঠা হয় নি ,,,,,
প্রতি দিন কলেজের সামনে হ্যাংলার মতো দাড়িয়ে থাকি,,,,
কখন আসবে সেই কাঙ্ক্ষিত পরী,,,,
একটা নজর দেখে নিজের মন কে সান্ত্বনা দিবো সেই অপেক্ষায়,,,,,
নীলা যে বুঝতে পারে না তা নয় ,,,
নীলাও বুঝতে পারে আমি ওর জন্য রোজ কলেজের সামনে দাড়িয়ে থাকি,,,,,
মাঝে মাঝে দুই একবার মাথা তুলে আড় চোখে তাকায়,,,
এর বেশি কিছু না ,,,
আজ পর্যন্ত ওর সাথে কোনো কথা বলতে পারি নি ,,,,,,
মাঝে মাঝে ওর পিছনে পিছনে ওর বাসা পর্যন্ত যাই,,,,,


প্রতি দিনের মতো আজও দাড়িয়ে আছি,,,,
কিন্তু নীলা এখানো আসছে না কেন ,,,,,
কলেজ ছুটি হবার পর ও তো সবার আগেই প্রায় বের হয়,,,,,,
লেট হচ্ছে বলে কিছু ভালো লাগছে না ,,,,
কেমন জানি মনটা ছটফট করছে ,,,,,
হঠাৎ পিছনে থেকে কেউ নমনীয় কন্ঠে বললো

“””” এই ছেলে,,,,,

পিছনে তাকাতেই আমি অবাক ,,, এতো নীলা,,,,,
কি বলবো ,,,,,,
আমায় অপমান করবে না তো ,,,,,
একটু একটু ভয় ও হচ্ছে ,,,,

“””” আমায় বলছেন ,,,,,
“””” আপনি তো রোজ এখানে দাড়িয়ে থাকেন ,,, অন্য কেউ তো আর থাকে না,,,,,
“””” আমি,,,, কই না তো ,,,,
“”” আপনি এমন ঘামছেন কেন,,,,,
“”” গরম লাগছে অনেক ,,,,
“”” আকাশ তো মেঘলা,,,,,
“””” ওহহহ,,,,,,,
“””” ভালোবাসেন বলতে পারেন না ,,,,
“””” কই না তো ,,, আমি তো কাউকে ভালোবাসি না,,,,
“”” ওহহহ,,,, তাহলে আমার ধারণা ভুল ,,,, আচ্ছা গেলাম ,,,,
“”” এই যে শুনেন ,,,,
“”” হ্যা বলুন ,,,,,
“”” বাসি,,,,
“”” কি বাসি,,,,
“”” ভালোবাসি ,,,,,
“”” কাকে,,,,
“”” আপনাকে ,,,
“”” ওহহহ,,,, কিন্তু আমার একটা ইচ্ছে আছে যদি সেটা পূরণ করতে পারেন তবে আমিও আপনাকে ভালোবাসবো,,,,
“”” কি শর্ত বলেন ,,,,,
“””” আমি রোজ সকালে ঘুম থেকে উঠে আমার বাসার সামনে একজোড়া নীল চুড়ি আর একটা ফুল দেখতে চাই ,,,,,,
“””” ওহহহ,,, কে রেখে আসবে ওগুলো ,,,,
“””” আমি কি জানি ,,, যে রেখে আসবে আমি তাকে ভালোবাসবো,,, তবে এই ইচ্ছে টা আপনি ছাড়া আর কেউ জানে না ,,,,,,
“”” ওহহহ,,,,
“”” তবে একদিন মিস হলে শুরুর আগে কিন্তু ভালোবাসার সমাপ্তি হবে ,,,,,
“””” এসব অশুভ কথা বলতে নেই ,,,, কত দিন দিতে হবে
“””” শুধু ১০০ দিন ,,,, তবে মাথায় রাখবেন মিস হওয়া যাবে না ,,, আর অবশ্যই আমার ঘুম থেকে উঠে বের হওয়ার আগেই ,,,,,,
“””” আপনি ঘুম থেকে উঠেন কখন ,,,
“””” আপনি জানেন না বুঝি,,,,,
“””” না মানে হুম ,,,,

নীলা চলে যাওয়ার জন্য ঘুরলো,,,,,

“””” আমি কি আপনি টাকে তুমি বলতে পারমিশন পেতে পারি,,,,,,
“””” উমমমমম,,,,, ওকে ,,, পারমিশন দেওয়া হলো,,,,,,


মিষ্টি একটা হাসি দিয়ে নীলা চলে গেল ,,,,,
এক হাসিতেই আমার পুরো পৃথিবী যেন থমকে গেছে ,,,,


এরপর থেকে শুরু হলো রোজ দিনের কাজ,,,,
রোজ সকালে ঘুম থেকে উঠে নীল চুড়ি আর একটা ফুল রেখে আসতাম ,,,,
আগের দিন রাতেই অনেক গুলো কিনে নিয়ে এসেছি ,,,,


কিন্তু সমস্যা হলো অন্য কোথাও ,,,,
ওর বাসার কুত্তাটার সাথে কোনো ভাবেই ভাব করতে পারছি না ,,,,,
আমায় দেখলেই মনে হয় ওর Ex gf এর কথা মনে হয় ,,,,,
তাই আমার প্রেম টাও সাকসেস করতে দিবে না ,,,,,,,
.
দেখতে দেখতে দুই মাস পেরিয়ে গেলো ,,,,,
এখন কুত্তা সাহেব আর ঝামেলা করে না ,,,,,

আজ ফুল আর নীল চুড়ি দিতে গিয়ে দেখি বাইরে আমার শ্বশুর মশাই দাড়িয়ে আছে ,,,,,
কি করবো ভাবছি ,,,,,
ঠিক তখনি শ্বশুর মশাই এর ডাক,,,,

“”””” এই ছেলে ,,,,
“”””” আমায় বলছেন ,,,,
“””” হুম ,,, এদিকে এসো,,,,,,
“”””” জ্বি বলুন ,,,,,
“”””” তখন থেকে দেখছি বাসার সামনে হাটাহাটি করছো,,,,,, সমস্যা কি ,,,,
“””” না মানে ইয়ে ,,,,,
“””” না মানে ইয়ে কি,,,,,
“””” জগিং করতে যাচ্ছিলাম,,,, আপনাকে দেখে দাঁড়ালাম ,,,,,
“””” কেন,,,,,,
“””” মনে হলো আপনিও যাবেন ,,, তাই ভাবলাম একসাথেই যাই,,,,,
“””” দেখেই বুঝে গেলা আমিও যাবো ,,,,,
“”””” না মানে মনে হলো,,,,,,
“””” আচ্ছা ঠিক আছে আমি আজ যাবো না ,,, কাল থেকে একসাথে যাবো ,,,,,


আমি ওখানে থেকে চলে আসলাম,,,,,
কথা বলার ফাঁকে চুড়ি আর ফুল টা রেখে এসেছি ,,,,,

কাল থেকে শুরু হবে নতুন মিশন ,,,,
এবার শ্বশুর মশাই কে পটাতে হবে ,,,,,,

রোজ সকালে আমি আর শ্বশুর মশাই একসাথে জগিং এ যাই,,,,,
এভাবে কেটে গেল আরও পনেরো দিন ,,,,,
এখন শ্বশুর মশাই এর সাথে আমার খুব ভালো সম্পর্ক গড়ে উঠছে,,,,,,,,
শুধু সকালবেলা না সন্ধ্যায় ও আমরা একসাথে হাটাহাটি করি,,,,,,,

এসে গেছে অন্তিম দিন ,,,,,
কাল যদি চুড়ি দিতে পারি তবে আমি সাকসেসফুল ,,,,,

সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে ফ্রেশ হলাম,,,,,
রেডি হয়ে গতকাল রাতে নিয়ে আসা একগুচ্ছ গোলাপ আর দুই ডর্জন নীল চুড়ি নিয়ে বাসা থেকে বেরিয়ে পরলাম ,,,,,,,,,
গতকাল শ্বশুর মশাই কে বলেছি আজ জগিং এ যাবো না ,,,,,,,
বাসার সামনে এসে দাড়িয়ে আছি ,,,,,
একটু পরে নীলা বাইরে চলে আসলো,,,,,,
এসে আমি যে জায়গা টা তে চুড়ি রাখতাম সে জায়গায় চুড়ি খুজছে,,,,,
চুড়ি না পেয়ে হাসি হাসি মুখটা মুহূর্তে ফ্যাকাশে হয়ে গেল ,,,,,,,,
মন খারাপ করে বাসার ভিতরে যাচ্ছে ,,,,,,

“”””” এই বালিকা ,,,,,,,
( আমার কথা শুনে চমকে গেলো,,,,,, )
“”””” তুমি ,,,,,,
“””‘” আমায় খুজতেছিলে,,,,,
“”””” না,,,,,,
“”””” বালিকা তোমার চোখের ভাষা আমি বুঝতে পারি,,, তাই জন্য তো তোমায় ভালোবাসি,,,, তোমার লুকিয়ে রাখা অব্যাক্ত কথা গুলো আমার স্বপ্নে কড়া নারে,,,,,
“””” তাই ,,,,,,,
“””” হুম ,,,,,
“”””” কিন্তু আপনি আজ লেট,,,,, তাই আপনার শাস্তি পেতে হবে,,,,,,
“”””” বলুন কি শাস্তি দিবেন ,,,,,,
“”””” আপনার শাস্তি হচ্ছে আপনি সারাজীবন ঠিক এভাবেই আমায় নীল চুড়ি কিনে দিবেন ,,,,,,,
“”””” তাহলে আমার একটা চাওয়া আছে ,,,,,
“”””” বলুন ,,,,,

হাঁটু গেড়ে বসে ফুল আর চুড়ি গুলো সামনের দিকে এগিয়ে দিয়ে

“””” তোমার মনের মাঝে আমায় কি একটু জায়গা দিবে,,,,,
“”””” আমার মনের সম্পূর্ণ জায়গাটা তো আপনার নামে লিখে দিয়েছি,,,, আপনি জানেন না,,,,
“”””” তাই ,,,,
“””” হুম ,,,,,,,
“””” I love you
“”””” l love you too……

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *