বস যখন বউ part-11

  • বস বউ
    Sûmøñ Ãl-Fãrâbî
    Part_11


মুমুর কথা শুনে আমার চোখে প্রায় পানি চলে আসছে
নিজেকে কন্ট্রোল করার বৃথা চেষ্টা করছি
যাতে করে মায়া বুঝে না যায়,,,
কিন্তু মায়া তবুও বুঝতে পারছে,,,
মায়া আমার হাত দুইটা শক্ত করে ধরে আছে ,,,,

মুমু আর অনিক কথা বলেই যাচ্ছে ,,

“””” আচ্ছা মুমু তুমি কি সুমনকে আমাদের সম্পর্কের কথা বলেছ,,,,
“””” আরে না,,,
“””” হুম ,,,
“”””” তবে জানো ছেলেটা অনেক ভোলা ভালা মানুষ ,,,
“””” কিভাবে ???
“””” ও অনেক কেয়ারিং ,,,, এই একমাসে সেটা বুঝলাম ,,,
“””” এই মুমু,,,
“””” হুম ,,,
“””” তুমি আবার ঐ হাদারাম টার প্রেমে পড়ে যাও নি তো,,,,
“””” আরে না,,, কি যে বলো না ,,,, ওর মতো একটা ছোটলোক কে ভলোবাসবো আমি,,,,,
“””” হুম ,,,,
“””” তবে এই একটা মাস খুব ভলোই কাটলো,,,
“””” থাক তোমায় আর ভলোবাসার অভিনয় করতে হবে না ,,, নয়তো দেখাযাবে তুমি নিজেই আবার ওকে ছাড়তে পারছো না,,,,
“””” তাই বুঝি,,,, তবে বোকা ছেলেটা বুঝতেই পারে নি যে আমি অভিনয় করছি,,,, ,,,
“””” হুম ,,, আমার বউটা অনেক ভালো একটর,,,
“””” এখনো কিন্তু তোমার বউ হই নি,,,,
“””” হুম,,, কিন্তু হবে তো,,,
“””” হুম ,, চলো এখন বাসায় যাবো,,, অনেক দেরী হয়ে যাচ্ছে ,,
“””” হুম চলো,,,,

মুমু আর অনিক চলে গেল ,,,
কিন্তু তারা একবারের জন্য ও লক্ষ করে নি
আমাদের দিকে,,,
হঠাৎ ওয়েটারের কথায় বাস্তবে ফিরে আসলাম

খাওয়ার ইচ্ছে শেষ হয়ে গেছে
তাই ওয়েটারকে বললাম
খাবার টা প্যাক করে দিতে
এবার মায়ার দিকে তাকালাম

মায়ার দিকে তাকাতেই দেখি ওর দুই চোখ
দিয়ে পানি ঝড়ছে ,,,,

“”””” এই পাগলী মেয়ে,,, তুমি কান্না করছো কেন,,,,,
“””” এমনি,, চলো বাসায় যাবো,,,,

খাবারের প্যাকেট টা নিয়ে মায়া আর আমি বাসায় আসলাম
মায়া কোনো কথা না বলেই ওর রুমে চলে গেলো,,,
আমি ছাদে গেলাম ,,,

আকাশের দিকে তাকিয়ে ভাবছি ,,
আমি এতটাই বোকা একটা মানুষের মিথ্যা ভালোবাসা বুঝতে পারি নি
আল্লাহ আমাকে এতটুকু বোঝার ক্ষমতা দাও নি,,,,
বুঝবোই বা কি করে
আমি নিজেই তো অন্ধ ছিলাম,,,
আর অন্ধর কাছে দিন আর রাত তো সমান,,
তাই ও দিনের বেলায় আমায় বলেছে
আকাশে তারা দিয়ে ভর্তি,,,
আর আমি বোকার মতো সেটাই বিশ্বাস করছি,,,,

হঠাৎ মায়া সামনে এসে দাঁড়ালো ,,,
হাত দিয়ে আমার চোখের নিচের জমে থাকা পানি
মুছে দিলো,,,
আমি কি কাঁদছিলাম???
হয়তো ,,,
কখন যে চোখ দিয়ে পানি গড়িয়ে পড়ছে বুঝতে পারি নি,,,
চোখ গুলার ও কাজ নেই
অন্যের জন্য পানি ঝড়ায়,,,

“””” খুব কষ্ট হচ্ছে তাই না,,,,
“””” কই নাতো,,, আমার কেন কষ্ট হবে,,,
আমি ঠিক আছি ,,,
“”””” কি করে পারো এভাবে থাকতে ,,, নিজের কষ্ট গুলো চেপে রাখতে ,,,,
“”””” ( একটু মুচকি হাসির বৃথা চেষ্টা)
“””” আমার ভাবতেও কষ্ট হচ্ছে আপু এমন করবে,,,
তবে আপু বুঝতে পারছে না যে ও কি ভুলটা করছে,,,
অনিক কে আমি ভালো করেই চিনি,,, ও বেশ কিছু দিন আমার পিছনেও ঘুরছে ,,,,
“””” বাদ দাও না এসব ,,,
“””” তুমি আপুকে শাসন করো না কেন???
“””” শাসন করে কি হবে ?? হয়তো জোর করে ওকে পাবো,, ওর দেহকে পাবো,,, কিন্তু ওর মনটা কি পাবো???
জোর করে সব সম্ভব হলেও কারো মন পাওয়া টা অসম্ভব ,,,
“””” আপু বুঝতে পারছে না যে ও কোন রত্মটি হারাচ্ছে ,,,,
“””” অনেক রাত হয়েছে চলো ঘুমাবো চলো,,,,

সারাটা রাত গেলো,,,
চোখের পাতায় ঘুমের কোন আনাগোনাও নেই ,,,,
সারাটা রাত ভাবলাম ভালোবাসা টা কি বোকামো
কাউকে মন থেকে ভালোবাসলে কি বোকা হতে হয়,,,,


সকাল বেলা মায়া ওঠার আগেই বের হয়ে চলে গেলাম
আজ সারাদিন অফিসে কারো সাথে কথা বলি নি তেমন,,,
এখন সন্ধ্যা ,,,
অফিস টাইম শেষ,,,,
সবাই বাসায় চলে গেছে ,,,,
কেন জানিনা বাসায় যেতে ইচ্ছে করছে না,,,
বার বারবকে যেন ফোন দিচ্ছে ,,,
ফোনটা হাতে নিয়ে দেখি
মায়ার নাম্বার ,,,,

“””” হ্যাঁ মায়া বলো,,,,
“””” ভাইয়া কই তুমি ,,,,
“””” আমি অফিসে ,,,,
“””” এখনো অফিসে কি করো,,,
“””” একটু কাজ আছে,,,,
“””” তোমার ফোন বন্ধ ছিলো কেন???
“””” চার্জ ছিলো না

মিথ্যা বললাম ,,
ইচ্ছা করেই ফোনটা বন্ধ করে রেখেছিলাম,,,,

“””” বাসায় আসবা কখন ,,,,
“””” যাবো একটু পরে ( যদিও বা ইচ্ছে নেই)
“””” তাড়াতাড়ি আসো,,, আংকেল আন্টি আর আপু আসছে ,,,
“””” হুম ,,,

ফোনটা কেটে দিয়ে বাসায় যাওয়ার জন্য বের হলাম
বাসায় যেতাম না
কিন্তু শ্বশুর শাশুড়ী আসছে তাই যেতে হলো,,,

বাসায় এসে দেখি সবাই বসে টিভি দেখছে ,,
সালাম দিয়ে আমি আমার রুমে আসলাম
মুমুও আমার সাথে আমার রুমে আসলো

“””” কি হলো,,, আজ এতো দেরী করে আসলে যে?

কথাটা শুনে আমি মুমুর মুখের দিকে তাকালাম
দেখে মনেই হচ্ছে না যে
ও শুধু মাত্র ওর স্বার্থ হাসিলের জন্য
আমার সাথে ভালোবাসার অভিনয় করছে,,,,

“””” এই, কি দেখছো আমার দিকে এভাবে তাকিয়ে ???

মুমুর কথায় ভাবনার ছেদ ঘটালো

“””” তোমার হাসিটা না অনেক সুন্দর,,,
সেটাই দেখছি,,,
“””” এভাবে বলো না,,, লজ্জা করে না বুঝি ,,,,
“”””” হুম ,,,
“””” আচ্ছা তুমি ফ্রেশ হয়ে নাও,,,, সবাই তোমার জন্য অপেক্ষা করছে ,,,
“””” আচ্ছা

কি নিষ্পাপ মেয়ে
দেখে বোঝাই যায় না যে
আমার সাথে এমন করতে পারে
মানুষ এতো স্মুথলী অভিনয় করতে পারে
তা হয়তো মুমুকে না দেখলে জানতাম না ,,,,

বাথরুমে গিয়ে ফ্রেশ হয়ে বাইরে আসলাম ,,
সবাই কতো হাসিখুশি
এই প্রথম এতো বড় একটা প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করবো আমরা
মুমুর খুশি যেন ধরে না,,
ও তো খুশি হবেই
কারণ ওর তো প্ল্যান সাকসেসফুল হবে ,,,
নিজের ভালোবাসার মানুষকে পাবে,,,
কিন্তু আমার কপাল টাই খারাপ
আমি কেন আমার ভালোবাসার মানুষকে হারাবো,,,,

অনেক কষ্ট করে হলেও সবার সাথে হেসে হেঁসে কথা বলতে হচ্ছে
তবে আনমনে মুমুর দিকে তাকিয়ে আছি
ওর মুখে হাসির বন্যা বয়ে যাচ্ছে ,,,
এক মুহুর্তের জন্য ভুলেই গেলাম
যে এই হাসিটা আমার জন্য না ,,,,

হঠাৎ মুমু আমার পাশে আসলো,,,

“”””” কি করছো,,, সবাই আছে,,, এভাবে ডেপ ডেপ করে তাকিয়ে আছো,,, সবাই দেখছে তো,,,,

এবার মাথা নিচু করলাম ,,,
হঠাৎ মায়ার দিকে চোখ পড়লো
ও আমার দিকে ভেজা ভেজা চোখে তাকিয়ে আছে
আমি ইশারায় ওকে হাসতে বললাম ,,,,

খাওয়া শেষ করে সবাই বসে টিভি দেখছি,,,,

“”””” তো সুমন,,,, অফিস কেমন চলছে ???
“””” আলহামদুলিল্লাহ ,,, মোটামুটি ভালোই,,,,
“””” হুম ,,, তো এবার একটা নাতি উপহার দাও আমাদের ,,,,,

কথাটা শুনে আমি মুমুর মুখের দিকে তাকালাম ,,,,
পর মুখটা হঠাৎ কেমন জানি ফেকাসে হয়ে গেল,,,,

“”””” কি যে বলেন না,,, বিয়ের তো মাত্র কয়েক দিন হলো,,,, সবার চাওয়া পাওয়া গুলো পূরণ হোক,,, এরপর না চাইতেই ইনশাআল্লাহ আপনি নাতি পেয়ে যাবেন ,,,,,,
“”””” কিছু না ,,, আমি জাষ্ট মজা করলাম ,,,,,

কিছু সময় গল্প করার পর,,,
ওনারা রুমে গেলো,,,
আর আমি ছাঁদে

একটু পরে মুমুও আসলো,,,,

“”” এই যে কি ভাবছো,,,
“””” কে,,,, ওহহ তুমি ,,, কখন আসলা,,,,
“””” এখনি,,, এতো আনমনা হয়ে কি ভাবছো????
“””” আমার একটা বন্ধুর কথা ভাবছি ,,,,
“””” তাই ,,, কি ভাবছো?
“””” জানো ওর বউ না অন্য একটা ছেলেকে ভালোবাসে,,,
“””” কি??
“”” হুম ,, আর এটা ও জানে ,,,,
“””” কিছু বলে না তোমার বন্ধু ওর বউকে,,,,
“””” কি বলবে বলো,,, অনেক ভালোবাসে যে,,,, আর ভালোবাসা মানে ভালোবাসার মানুষটি কে পাওয়া না,,, যাতে সে সুখী হয় সেই কামনা করা ,,,,
“””” ওহহহ,,,, তো তোমার বন্ধু এখন কি করবে???
“””” ও সিন্ধান্ত নিছে যে এদের সবাইকে ছেড়ে দূরে চলে যাবে ,,,,
“”””” কেন???
“””” যাতে করে ওর ভালোবাসার মানুষটি তার ভালোবাসার মানুষটি কে পায়,,,,, কি বোকা তাই না বলো ছেলেটা???
“””” হুম ,,,,, নিজের বউকে কেউ ছেড়ে চলে যায়
“”””” সেটাই তো,,,,
“”””””তুমি কখনো আমায় ছেড়ে যাবে না ,,,,
“”””” আরে না,,, আমি কি বোকা নাকি,,, আমি অনেক চালাক,,,,,

কি ফরমালিটিস্ মেন্টেইন করতে জানে,,,,
আমার চোখে পামি টলমল করছে
এই পড়বে বুঝি,,,,
মুমুকে বুকে জড়িয়ে নিলাম
যাতে আমার চোখের পানি তার অগোচরেই থেকে যায়,,,,,

“””” আচ্ছা মুমু তুমি কি আমায় ছেড়ে যাবে,,,,
“”””” কখনোই না ,,, আমি আমার বরকে খুব ভালোবাসি,,,,
“””” হুম ,,,
“””” আচ্ছা প্রোজেক্ট সিগনেচার এর পেপার টা কই,,,,,

ওহহহ তাহলে এই ব্যাপার
এই জন্য এতো টা কাছে আশা ,,,,,


বিঃদ্রঃ যাদের মনে হয় এটা স্টার জলসার সিরিয়ালের মতো তাদের হাত জোর করে বলছি ভাই আমার গল্প পড়তে হবে না ,, আর কমেন্ট তো অবশ্যই করবেন না ,,,, আর আপনাদের মতো বসে বসে সিরিয়াল দেখার মেয়েলী স্বভাব নেই আমার,,,
কাউকে উৎসাহ দিতে না পারেন
তার আগ্রহ নষ্ট করার অধিকার আপনার নেই ,,,
এতো কষ্ট করে লেখার পর আপনার করা একটা বাজে কমেন্ট আমাদের মনের উপর কতটা বাজে প্রভাব ফেলে সেটা আপনারা কখনো বুঝবেন না ,,,,
অন্য কে উৎসাহ দিতে শিখুন
কিছু উৎসাহ মূলক কমেন্ট করুন দেখবেন পরের পার্ট টা এর থেকে বেটার পাবেন ,,,,
কিন্তু আপনারা তো nc. Nxt, ছাড়া কমেন্টে করেন না,,,, যেটা আমার কাছে উৎসাহের মনে হয় না,,,
আমি চাই আপনারা আমার ভুলটা ধরিয়ে দিন
তবেই আমি শুদ্ধ করতে পারবো নিজেকে ,,, আপনি আপনার মতামত টা দিন পরবর্তী পার্ট টা কি রকম হলে ভালো হবে ,,, তবেই না আমাদের লিখতে এবং আপনাদের পড়তে মজা লাগবে।
আমার কথা গুলো কারো মাইন্ডে আঘাত করলে দুঃখিত,,,
ধন্যবাদ,,,,


এখন বুঝতে পারলাম এতটা কাছে আসার কারণ কি??
শুধু মাত্র প্রোজেক্ট পেপার টা হাতে পাওয়ার জন্য এতো কিছু ,,,
মানুষ তার নিজ স্বার্থের জন্য কত কিছুই না করতে পারে,,,,
সেটা কল্পনার বাইরে

“””” কি হলো বললে না তো,,,,
“””” ঐ পেপার টা আমি এক জায়গায় রাখছি,,, খুব ইম্পরট্যান্ট পেপার তো তাই ,,,,
“””” আমায় রাখতে দিতা,,,,
“””” তুমি কোথায় রাখবা পরে যদি আবার ভুলে যাও,,,,
“””” কি যে বলো না,,, এত ইম্পর্ট্যান্ট একটা পেপার কোথায় রাখবো সেটা আমি ভুলে যাবো,,,,
“””” যেতেও তো পারো,,,
“””” কখনোই না ,,, আর দরকারী পেপার কখনো বাইরে রাখতে হয় না,,, নিজের কাছে রাখতে হয়,,,,
“””” তাই ,,,
“””” হুম,,, তুমি কাল নিয়ে এসে আমায় দিয়ো,, আমি আলমারিতে রেখে দিবো,,,,
“””” আচ্ছা ,,, তবে কাল না পরশু দিন ,,,,
“””” ঠিক আছে

( পুরো মুখে বিরক্তির ছাপ,,,,
মুখে শুধু স্বার্থ হাসিলের জন্য
অভিনয়ের হাসি মাত্র,)

“””” অনেক রাত হয়েছে,,, গিয়ে শুয়ে পড়,,,
“””” তুমি ঘুমাবা না ,,,
“””” তুমি যাও,,, আমি একটু পরে আসছি,,,,
“””” আচ্ছা,,, আর শোনো আব্বু কিন্তু তোমার রুমে ঘুমাবে,,,
“””” আচ্ছা,,,,

মুমু রুমে চলে গেল,,,
আমি ওর চলে যাওয়া দেখছি
মনে মনে ভাবছি
কতটা সুন্দর করে গুছিয়ে কথা বলতে পারে
অভিনয়টাও অনেক সুন্দর পারে ,,,
পৃথিবীর সব থেকে বড় ভিলেন
জোকার, থানোস্ এদের কেও
হার মানাবে তোমার অভিনয় ,,,,

আজ ওকে দেখে কেন জানি মনে হচ্ছে
মুমু যদি মুভি করতো
তবে পৃথিবীর সব থেকে আয়কর মুভি
ওরটাই হতো ,,,
অ্যাভাটার এর রেকর্ড ভেঙে দিতো,,,,

প্রোজেক্ট পেপার টা আমার কাছেই আছে
কিন্তু ইচ্ছে করেই বললাম আমার কাছে নেই
কেন জানি না ওর অভিনয় টা আরও কিছু দিন দেখতে ইচ্ছে করছে ,,,
তাই জন্য দুই টা দিন সময় নিলাম,,,
স্বার্থের জন্য ওকে আমার কাছে আসতেই হবে
অভিনয়ের ছলে হলেও আমায় একটু ভালোবাসবে,,,
একটু কাছে আসবে ,,,
এটাই আমার কাছে অনেক বড় পাওয়া ,,,,

রাত অনেক হয়েছে
রুমে এসে দেখি শ্বশুর মশাই ঘুমিয়ে গেছে
ল্যাপটপ টা নিয়ে মুমুর পিকটা বের করে দেখছি
হাসিটা কতো মায়াবী,,,
একবার দেখলাম
কেন জানি না বার বার দেখতে ইচ্ছে করছে,,,
হঠাৎ পিছনে থেকে শ্বশুর মশাই এর আওয়াজ,,

“””” সরি সুমন ,,,,

হঠাৎ শব্দে অনেক টা চমকে গেলাম

“””” আপনি ঘুমান নি,,,,
“””” না,,,,
‘””” কেন???
“””” তোমার সাথে কিছু কথা বলবো জন্য ,,,,
“””” সেটা তো কালকেও বলা যাবে ,,, এখন অনেক রাত হয়ে গেছে ,, আপনি ঘুমান,,,,
“”” মায়া আমায় সব বলেছে ,,,

বুঝতে পেরেও না বোঝার ভান করলাম ,,,

“””” মায়া আবার আপনাকে কি বলেছে ??
“””” তুমি বুঝেও না বোঝার চেষ্টা করছো,,,
“””” কই না তো,,,
“””” তুমি হয়তো জানো না ,,, গুছিয়ে মিথ্যা বলাটা একটা আর্ট যেটা সবাই পারে না,,, সেই না পারার দলে তুমি ,,,

এবার আর বলার মতো কিছু পেলাম না
চুপ হয়ে গেলাম,,,,

“””” আমি কখনো ভাবি নি আমার মেয়ে এমন হবে ,,, যদি জানতাম তবে তোমার মতো একটা ভালো ছেলের সাথে কখনোই বিয়ে দিতাম না,,,,, তুমি প্লিজ আমায় ক্ষমা করে দিয়ো,,,,
“””” কি করছেন আপনি ,,, আমি আপনার ছেলের মতো ,,, আর তাছাড়া মুমু যাকে ভলোবাসে তার কাছেই তো ফিরে যাবে তাই না বলুন ,,,
“””” আমার জন্য তোমার জীবন টা শেষ হয়ে গেলো,,,
“””” কি যে বলেন না,,, আমার জীবন শেষ হতে যাবে কেন,,,,,
“””” তোমার এই হাসির পিছনে লুকিয়ে থাকা কষ্ট টা কেউ না দেখলেও আমি দেখতে পাচ্ছি ,,,,
“””” কই না তো ,,,
আর আমি তে মুমুকে ভালোই বাসি না,,,
“””” ভালো না বাসলে ওর ছবি দেখে কখনো ওর জন্য কাঁদতে না,,,,
“””” কই আমি কান্না করি নি তো,,,
“””” তোমার চোখের পানি মুছতে আমি স্পষ্ট দেখেছি ,,,,

আমি আবার ও চুপ হয়ে গেলাম

“””” আমায় ক্ষমা করে দিয়ো সুমন
“””” এতে আপনি ক্ষমা চাইছেন কেন,,, এটা হয়তো আমার নিয়তি ছিলো,,, তবে এই কয়েক দিনে যে ওকে এতটা ভালোবেসে ফেলবো কখনো ভাবি নি,,,
“””” যা হবার তা হয়ে গেল ,,, কি করবে এখন ,,, কিছু ভাবলে,,,,
“””” হুম ,,,
””” কি ভাবছো???
“””” ওদের জীবন থেকে চলে যাবো,,,
“””” কি??? চলে যাবে মানে ,,,,
“””” পৃথিবীতে সব কিছু হয়তো জোর করে সম্ভব কিন্তু ভালোবাসা না,,,
আর যেখানে আমার জন্য ভালোবাসা নেই সেখানে থেকেই বা আমার কি লাভ ,,,,
সব সময় স্বপ্ন দেখছি ছোট্ট একটা পরিবার মিষ্টি একটা বউ আর পরীর মতো একটা ফুটফুটে মেয়ে ,,,,
তিন জন মিলে পাড়ি দিবো জীবনের প্রতি টা মুহূর্ত,,,
কিন্তু সেই স্বপ্ন টাই ভেঙে গেলো,,,,
স্বপ্ন ভেঙে গেলে যে এতটা কষ্ট হয় তা জানতাম না
আজ বুঝতে পারছি মানুষ সুইসাইড করে কি জন্য ,,,,
“””” প্লিজ তুমি এমন কিছু করিও না ,,,,
“””” আমি আপনার মেয়ে কে অনেক বেশি ভালোবাসি,,,
তাই জন্য এটা নয় যে আপনার মেয়ে ছাড়া আমার পৃথিবীতে আর কেউ নেই ,,
আপনার মেয়ে ছাড়াও আমার পৃথিবীতে আব্বু আম্মু আছে ,,,
যারা আমাকে ছোট থেকে এত ভালোবেসে বড় করেছে ,,,
আপনার মেয়ে চলে যাচ্ছে জন্য যে আমি সুইসাইড করবো এতটাও বোকা আমি না
এতো দিন বাঁচতাম আমার স্বপ্নের জন্য
এখন থেকে বাঁচব আমার আব্বু আম্মুর জন্য ,,,,
“”””” তুমি কি সত্যি আমাদের ছেড়ে চলে যাবে,,,
“””” হুম ,, হয়তো পরশু দিন ,,, আমি চাই যে যাকে ভালোবাসে সে যেন তাকে পায়,,,, আর তাদের মাঝে আমি কখনোই কাটা হতে চাই না,,,,
“””” মুমু আমার একমাত্র মেয়ে ,, ছোট বেলা থেকে কোনো আবদার অপূর্ণ রাখি নি,,, আদর দিতে দিতে মাতায় তুলেছি তার ফল যে আমায় এভাবে ভোগ করতে হবে বুঝতে পারি নি ,,,
“””” কেন?? ও তো ওর ভালোবাসাকেই চুজ করছে ,,, এতে তো অন্যায় কিছু নেই ,,,
“””” তুমি জানো না অনিক ভলো ছেলে না,,,, ও অনেক মেয়ের সাথে মেলামেশা করে ,,, শুধু মাত্র আমার সম্পত্তির লোভে ও মুমুকে ফাঁসিয়েছে,,,,
“””” আপনার ধারণা হয়তো ভুল ও হতে পারে ,,,,
“””” আমার ধারণা ভুল না,,, আমি নিজেই ওকে অনেক মেয়ের সাথে ঘুরতে দেখছি,,, তুমি প্লিজ আমার মেয়ে কে ওর হাত থেকে রক্ষা করো ,, ওকে ফিরিয়ে নাও,,,,
“””” হুম ,,, হয়তো ওর কাছে থেকে মুমুকে রক্ষা করতে পারবো কিন্তু ওকে ফিরিয়ে নিতে পারবো না,,,
“””” কেন,,,,
“””” যার মনে আমার জন্য ঘৃণা ছাড়া আর কিছু নেই তাকে ফিরিয়ে নিয়ে কি করবো,,,
“””” কিন্তু
“”””” কোনো কিন্তু নয় ,,, এখন আপনাকে আমার কথা মতো কিছু কাজ করতে হবে ,,,,
“””” যা বলবা তাই করবো,,,
বলো কি করতে হবে


পরের দিন সকাল বেলা
আমি অনেক কিছু রান্না করলাম,,,
কিছু আত্মীয় কে ইনভাইট করলাম
সাথে অনিক কেও,,,,

দুপুরে সবাই আসলো ,,,,
কিন্তু অনিক এখনো আসে নি ,,,
ঐ তো অনিক আসলো,,,,,

এরপরে সবাই একসাথে খাওয়া করলাম
খাওয়া করার পর
আমি শ্বশুর মশাই কে ইশারা করলাম ,,
তখন উনি উঠে দাঁড়ালো ,,,,

“””””” এক্সকিউজ মি ,,,, আপনাদের সবাইকে এখানে ডাকার কারণ টা কেউ কি জানেন????
“”””” না তো,,, আমাকেও তো বলো নি ( মুমু)
“”””” আমার স্থাবর অস্থাবর যত সম্পত্তি আছে সব কিছু আমি আমার একমাত্র জামাই সুমনের নামে লিখে দিয়েছি,,,, তাই সবাইকে জানিয়ে আজ এই দলিল সুমনের হাতে তুলে দিচ্ছি ,,,, সুমন এদিকে আসো,,,,

আমি এগিয়ে গেলাম ,,,
গিয়ে দলিলটা হাতে নিলাম ,,,,

“”””” আব্বু কি করছো এটা,,, তোমার সম্পত্তির অধিকার শুধু আমার,,, তুমি ওর নামে দিলা মানে ,,,,
“””” তোর সব কিছু তো ওর তাই না ,,, তাই জন্য ওর নামেই দিলাম ,,,,
“””” কিন্তু দেওয়ার আগে একবার তো আমায়,,,,,,

মুমুর কথা মাঝ পথে থামিয়ে দিয়ে
অনিক কাজের বাহানা দিয়ে চলে গেল ,,,,
মুমু আর কথা না বলে ওর পিছনে যেতে লাগলো,,,,

একটু পরে সবাই চলে গেল
আমি আর শ্বশুর মশাই একটা কাজে বাইরে গেলাম ,,,
সন্ধ্যার পরে বাসায় আসলাম ,,,,
শাশুড়ী আর মায়া টিভি দেখছে

“””” মায়া তোমার আপু কই,,,,
“””” মনে হয় ছাঁদে ,,,,,
“””” আচ্ছা ,,,,

আমি ছাঁদে চলে আসলাম
মুমু অস্থির ভাবে পায়চারি করছে
ওর এমন অস্থিরতা দেখে আর ডাকলাম না
শুধু দাঁড়িয়ে থেকে ওর দিকে দেখতে লাগলাম ,,,,

ও বার বার কাকে যেন ফোন দিচ্ছে ,,,,
কিন্তু রিসিভ হচ্ছে না
বেশ কয়েক বার ট্রাই করলো,,,,
এবার রিসিভ হয়েছে

“”””” হ্যালো,,,,
“”””” কি সমস্যা বার বার ফোন দিচ্ছো কেন,,,

ফোন হয়তো লাউডে ছিলো তাই সব শোনা যাচ্ছে
আর আমার ধারনাই ঠিক
ও অনিক কে ফোন দিছে,,,

“”””” আমার ফোন রিসিভ করছো না কেন???
“”””” ইচ্ছে করছে না ,,,,,
“”””” ইচ্ছে করছে না মানে???
“”””” তোমার সাথে কথা বলতে ভালো লাগে না আমার,,,
“””” কি বলছো,,, কালকেই তো বললাম আমার সাথে কথা বললে তোমার দিন ভালো কাটে,,,,
“””” সেটা কাল পর্যন্ত,,, কার কাল পর্যন্ত তুমি কোটিপতি ছিলে,,, আর এখন ভিখারি ,,,,,
“””” কি বলছো এসব তুমি না আমায় ভালোবাসো???
“””” তোমায় কে ভালোবাসে,,, আমি ভালোবাসি তোমার টাকাকে,,, কিন্তু তুমি তো এখন ফকির ,,,,
“””” তুমি আমার সম্পত্তি কে ভালোবেসেছিলে,,,, আমায় না,,,,
“””” তোমার মতো সরি তোর সাথে এত সুন্দর ব্যবহার করে লাভ নেই ,,, তোর মতো আরও অনেক gf আছে আমার,,,, শোন এখন তো আর কিছু করতেও পারবি না,, ঐ গাইয়াটার সাথে সারাজীবন কাটিয়ে দে,,,,,
“”””” আব্বু ঠিকই বলে আমি সব সময় মানুষ চিনতে ভুল করি,,,,,
“””” হুম,,, ফোন রাখ,,, আর কোনো দিন ফোন করবি না ,,,, আমি আবার কোনো ভিখারির সাথে কথা বলি না ,,,,,
টু,টু,টু,,,,

ওপাশে থেকে অনিক ফোন কেটে দিলো
মুমু যে জায়গায় দাঁড়িয়ে ছিলো
ঐ জায়গায় বসে কান্না করছে

একবার এগিয়ে যেতে চাইলাম
পরে ভাবলাম না,,,
এটাই ওর প্রাপ্য,,,,
আমি নিরবে অনেক কেঁদেছি
ও আজ একটু কেঁদে দেখুক কেমন লাগে
ঠিক কতটা কষ্ট পেলে মানুষের চোখ দিয়ে পানি আসে সেটা ওর বোঝা উচিত ,,,,,

কারণ সে সাপের কামড়ের বিষের ব্যাথা ততদিন বুঝবে না
যতদিন না সে নিজেই সাপের কামড়ের বিষের ব্যাথায় কাতরাতে থাকবে,,,,,
.
..

….

..
.
To be continue

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *