রাগি গার্লফ্রেন্ড যখন বউ-Part-4

রাগি গার্লফ্রেন্ড যখন বউ♥
লেখাঃমোঃরিফাত আলি♥
#পর্বঃ04

জোর করে ঠোটে ঠোট ডুবিয়ে দিল।
এতজোরেই মাথা চেপে রয়েছে ছুটতেও পারছিনা।
অনেকক্ষন পর ছেড়ে দিল।
.
আমিঃমেরে ফেলার বুদ্ধি তাইনা?
সিমিঃউহুম একদম না।তোমাকে বুঝিয়ে দিলাম আমার হৃদয়ে কার জায়গা।
আমিঃকার?
সিমিঃএতক্ষন ধরে আদর দিলাম তারপরেও জিজ্ঞেস করো কার! তারপরেও বলেদি আমি শুধু তোমার।
আমিঃহুম।
সিমিঃকি হুম?
আমিঃনা কিছুনা। অনেক রাত হলো ঘুমাও।
সিমিঃঘুমাব না।
আমিঃকেন?
সিমিঃতুমি আমাকে কষ্ট দিয়েছো তাই।
আমিঃতা মহারাণী কি করলে আপনি ঘুমাবেন আর আপনার কষ্ট দুর হবে?
সিমিঃবুকে নাও আগে।
.
বুকের উপর মাথা রাখলো। হাত পা সব দিয়ে জড়িয়ে ধরলো।
.
আমিঃহুম এবার বলো ।
সিমিঃকিচ্ছু না। একটু ঘুম পাড়িয়ে দাও।
.
আমিঃকিভাবে ঘুম পাড়াব?
.
সিমিঃতোমার ঘুম না আসলে আমি যেভাবে ঘুম পাড়িয়ে দি সেভাবে দাও।
.
আমিঃআমি কি তোমার মতো করে পারব?
.
সিমিঃঘুম দিবানা বললেই হলো। এত কথা বলার কি আছে? সরো (রেগে)
.
আমিঃআহা সোনা রাগ করছো কেন? আসো বুকে আসো।
.
সকালবেলা
.
সিমিঃএই উঠো।
.
আমিঃউম আরেকটু পর।
.
সিমিঃটুরের জন্য আয়োজন করবে কে?
.
আমিঃম্যানেজার আছেনা।
.
সিমিঃনা । তুমি করবে।
.
আমিঃআমি কেন?
.
সিমিঃতোমার কাজ বেশি ভালো তাই।
.
আমিঃও তারমানে কাজের জন্য আমাকে বিয়ে করেছো।
.
সিমিঃহুম কাজ ত তুমি একাই করো।আমি যে তোমার জন্য এতকষ্ট করে রান্না করি। তোমার কাপড় পরিষ্কার করি আরো কত কি।
.
আমিঃহুম তাইতো। আমি ত এসব জানতাম না।
.
সিমিঃফাজলামি? যাও ফ্রেশ হয়ে এসো খাবার রেডি আছে।
.
আমিঃআচ্ছা যাচ্ছি।
.
ফ্রেশ হয়ে এসে খেয়েদেয়ে ট্যুরের আয়োজন করার জন্য যা যা করা দরকার তা করলাম।
.
.
বিকালে বাসায় এসে দেখি উজ্জল সোফায় বসে আছে আর সিমির সাথে দাঁত বের করে হেঁসে হেঁসে কথা বলছে।
.
সারাদিন মনটা ফুরফুরে ছিলো।
কিন্তু একমুহুর্তে সব শেষ হয়েগেল।
.
উজ্জলঃকি হলো ভাই দাঁড়িয়ে আছেন কেন?আসেন বসেন।
.
আমিঃবাইরে থেকে এলাম তো তাই ক্লান্ত লাগছে। তোমরা গল্প করো আমি রেস্ট নি।
.
.
উজ্জল কিছু না বুঝলেও সিমি ব্যাপারটা ঠিকই বুঝেছে।
.
ফ্রেশ হয়ে শুয়ে শুয়ে ফেসবুক চালাচ্ছি।
হঠাৎ পুকিং করে আওয়াজ হলো।
.
মেসেজ এসেছে!
আজকাল ফেসবুক ম্যাসেন্জারটাও অশ্লিন হয়েগেছে ।
.
যাইহোক মেসেজটা ওপেন করলাম।
.
ইতি মেসেজ দিয়েছে।
ইতিঃহাই।
আমিঃহাই।
ইতিঃকেমন আছেন?
আমিঃভাল আপনি?
ইতিঃভাল। কালকে ট্যুর তাইনা?
আমিঃহুম।
ইতিঃবিজি আছেন বুঝি?
আমিঃনা।কেন?
ইতিঃঅনেক দেরিতে রিপ্লায় দিচ্ছেন যে।
আমিঃক্লান্ত আছি।
ইতিঃরেস্ট নিন তাহলে। কাল দেখা হবে।
আমিঃহুম।
.
.
অনেকক্ষন পর সিমি এলো।
সিমিঃওর সাথে একটু কথা বললে কি হতো?
আমিঃদেখ এখন তোমার সাথে আমার ঝগড়া করার ইচ্ছে নেই।
.
সিমিঃতারমানে আমি ঝগড়াটে।
.
সিমিঃমেয়েদের সাথে ত সবসময় হেসে কথা বলো। আমার বন্ধুকে দেখলেই মুখ ভার।
.
আমিঃউজ্জল বাসায় কেন এলো?
সিমিঃকেন আসবে না।
আমিঃনা ও আসতে পারবে না।
সিমিঃকেন পারবে না।
আমিঃওকে আমার পছন্দ না।
সিমিঃসেটা তোমার ব্যাপার।
আমিঃতুই থাক তোর বন্ধুকে নিয়ে। আর ওকে নিয়ে যা ট্যুরে।পারলে একসাথেও থাকিস।
.
সিমিঃকি বলতে চাও।
আমিঃবুঝো না তুমি।
সিমিঃচিপ মাইন্ড।
আমিঃচিপ না। কারন যে অফিসে জড়িয়ে ধরতে পারে সে হোটেলে কি করতে পারে?
.
সিমিঃকেন বুঝছো না তুমি?
আমিঃকারন ভয় হয় তোমাকে হারার।
সিমিঃতাকাও আমার দিকে। (মুখে হাত দিয়ে)
আমিঃবলো।
সিমিঃউজ্জল এসেছিল কথা বলতে।ট্যুরে যেতে চায়। অন্যকিছু না।
আমিঃহুম।
সিমিঃআমি শুধুই তোমার।
.
আমিঃতাহলে ও তোমাকে জড়িয়ে ধরলো কেন সেদিন?
সিমিঃউফফফ। কতবার বলবো অনেকদিন পর দেখা তাই হয়তো।তবে এটা শহরে কমন।
.
ফোনে কল এলো।
তাকিয়ে দেখি
চলবে…

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *