রোমান্টিক বউ

💖রোমান্টিক বউ💖
||
||
লেখক:ফারহান
||
||
আমার নাম ফারহান।আমি বাবা মায়ের একমাত্র সন্তান।আমি এবার অনার্স শেষ করছি।এখন চাকরি খুজতেছি।চাকরি না পাওয়া পর্যন্ত আব্বুর সাথে আব্বুর ব্যবসায় সাহায্য করি,,,,আর যাকে নিয়ে গল্প লেখা তার নাম ইরা।ইরা এবার অনার্স ২য় বর্ষএ পড়ে,,,,,,৷ইরা হল আমার বাবার বন্ধুর মেয়ে পরিচয় পর্ব শেষ এবার গল্পে আসা যাক,,,,,
,,,,,,
আম্মুঃএই আর কত ঘুমাবি?যা বাজারে যা,,,,,
আমিঃআম্মু একটু ঘুমাতে দাও না,,,
আম্মুঃ এত বেলা হয়ে গেছে,,,,এখনো পড়ে পড়ে ঘুমাচ্ছিস,,,,,,যা বাবা বাজারে যা,,,,ঘরে কিছু নাই,,, বাজার থেকে কিছু না আনলে কি দিয়ে রান্না করব,,,,,
আমিঃআচ্ছা,,,,তুমি নাস্তা রেডি কর,,আমি আসতেছি,,
আম্মুঃআচ্ছা,,,,,
তারপর রেডি হয়ে বাজারে নাস্তা খেয়ে বাজারে গেলাম,,,,বাজার থেকে বাসায় এসে ল্যাপটপ নিয়ে বসছি,,,,তখন আম্মু বলে কিরে তোর চাকরির কোনো খোঁজ খবর পেলি?
আমি বলি না,,,,কিছুদিন পর একটা ইন্টারভিউ আছে,,,,,,আম্মু বলে এবার, যেন তোর চাকরি টা হয়ে যায়,,,,আমার আর দেরি সহ্য হচ্ছে না,,,,,,
আমিঃকেন?
আম্মুঃ না,,,এমনেতেই,,,
আমিঃআমি চাকরি পাইনা তো কি হইছে?বাবার ব্যবসায় সাহায্য করি তো,,,,
আম্মুঃতারপরেও,,,তুই চাকরি পেলে আমার একটা মনের ইচ্ছা পূরণ হইতো,,,,,,
আমিঃকি ইচ্ছা?
আম্মুঃতুই তো জানিস আমার ঘরে একলা থাকতে ভাল লাগে না,,,আমার যদি একটা মেয়ে থাকত কত ভাল হইত,,,,
আমিঃতুমি ঠিক কি বলতে চাও?সোজাসুজি বল?
আম্মুঃতুই চাকরি পেলে তোর সাথে ইরার বিয়ে দেওয়ার কথা ভাবতেছি,,,,
আমিঃআম্মু কি বল এসব?আমি মাত্র অনার্স শেষ করছি,,,একটা চাকরি পাব,,,,তারপর ১বছর পর বিয়ে করার চিন্তা করব,,,
আম্মুঃবাহ বাহ আমার ছেলে বলে কি? তুই ছোট থাকতে যা চাইতি আমি তোর আব্বুর থেকে মিথ্যা কথা বলে তোকে দিতাম,,,,তোর পরীক্ষায় রেজাল্ট খারাপ হলে,,,আমি তোর আব্বুর মাইর থেকে তোকে রক্ষা করতাম,,,,তোর জন্য তোর আব্বুর সাথে ঝগড়া করতাম,,,তারপরেও তোর গায়ে একটা আঁচও লাগতে দেই নি,,,,তোর বাইক লাগবে আমি তোর জন্য তোর আব্বুকে অনেক কষ্ট করে বুঝিয়ে বাইক কিনে দিছি,,,,,তুই বুজি আমার ছোট একটা ইচ্ছা পূরণ করতে পারবি না,,,,(আম্মু এইকথা গুল কান্না করতে করতে বলছে)
সত্যিতো আম্মু আমার জন্য নিজের কথা চিন্তা করে নি,,,,,,ছোট থেকে বড় হওয়া পর্যন্ত আমি যা চাইতাম তাই পাইতাম অথচ আমি বুজি আম্মুর একটা ইচ্ছা পূরণ করতে পারবো না,,,,,আম্মু বলে ডাক দিছি কিন্তু আম্মু কই?বুঝতে পারছি,,,আম্মু আমার সাথে রাগ করছে,,,,যাই আম্মুর রাগ ভাংগাই,,,,,
আমিঃআম্মু,,,,,
আম্মুঃযা এখান থেকে আমার এখন তোর সাথে কথা বলার ইচ্ছা নাই,,,,,,,
আমিঃ আম্মু রাগ করে না,,,,আমি বিয়ে করতে রাজি আছি তো,,,,,তুমি না কত্ত ভাল,,,,প্লিজ রাগ কর না,,,,,আমি বিয়ে করব,,,,এবার তো একটু হাসো,,,,,(আম্মুকে জড়িয়ে ধরে কথাগুলো বললাম)
আম্মুঃসত্যি,,,তুই রাজি
আমিঃহুম,,,রাজি হব না,,,,কেন,,,,আম্মুর একটা ইচ্ছা যদি পূরণ না করতে পারি,,,তাহলে আমি ছেলে হয়ে বেচে থেকে লাভ কি?
আম্মুঃওই তুই আমার সব,,,,,তুই যদি আরেকবার বলিস যে বেচে থেকে লাভ কি? আমি তোর সাথে কখনো কথা বলব না,,,,
আমিঃআচ্ছা আর বলব না,,,,,,তুমি যে ইরার সাথে বিয়ে করার কথা বলছ,,,,,ইরা কি জানে?
আম্মুঃআশলে ইরাই তোকে প্রায় ২বছর যাবৎ ভালবাসে,,,,ইরা আমাকে গতকাল বলছে,,,,,আর আমি তোর আব্বুকে বলছি ইরার কথা,,,, তোর আব্বু বলছে আজকে ইরার আব্বু আম্মুর সাথে কথা বলবে,,,,,
আমি:ইরা আমাকে ভালবাসে?কই ওতো কখনো আমাকে বলে নাই,,,,,,,
আম্মুঃইরা ভয় পেত,,,তুই যদি ওকে ফিরিয়ে দিস,,,তাই বলে নাই,,,,
আমিঃও,,,ভাল,,,
হঠাৎ আব্বুর আগমন,,,,
আব্বুঃফারহান তোমার জন্য পাঞ্জাবি,,, আর আজকে ইরার সাথে তোমার রাতে ঘরোয়াভাবে বিয়ে হবে,,,,,,
আমিঃকি,,,আজকে বিয়ে,,,,,আমি তো এখনো চাকরি পাই নি?এখন বিয়ে করলে বউকে খাওয়াব কি?
আব্বুঃআচ্ছা বলত এই বাড়ি টা কার?
আমিঃআমাদের,,,
আব্বুঃআমার এত বড় ব্যবসা টা কার?
আমিঃআমাদের
আব্বু:আমাদের কি তুই কোনোদিক থেকে অভাব দেখসস?
আমিঃ কই নাতো,,,,
আব্বুঃ হারামজাদা তাহলে বলছ কেন? বউরে খাওয়াব কি?
আমিঃআচ্ছা ঠিকাছে আমি তো রাজি,,,,,বিয়ে রাত কয়টায় হবে,,,,,?
আব্বুঃ৯.০০ টায়,,,,,রেডি থেক,,
আমিঃআচ্ছা,,,,।
তারপর আব্বু চলে গেল,,,,আব্বুকে খুব ভয় পাই,,,,যদি বলতাম আমি এই বিয়েতে রাজি নাই,,,তাহলে নিজেকে এখন হাসপাতালে আবিষ্কার করতাম,,,,,এর থেকে ভাল বিয়ে রাজি হয়ে যাওয়া,,,,
আপনাদের তো বলা হয়নি,,,ইরা এবং তার পরিবার আমাদের বাড়িতে ভাড়া থাকে,,,,,,ওর সাথে আমার তেমন একটা কথা হত না,,,,তবে ইরা অসম্ভব সুন্দরী যাকে বলে ভয়ংকর সুন্দরী,,,,,, কিন্তু ও যে আমাকে ভালবাসে কখনো বলে নাই,,,,,
আচ্ছা যা হওয়ার হবে,,,,
দিন কেটে গেল রাত চলে এল কিছুক্ষণ পর আমি অন্য একটা জীবনে পদার্পণ করব,,,,,
বিয়ে হয়েই গেল,,,,,এখন বাশর রাত,,, কিন্তু যে রুমে আমার বাশর করছে৷৷,,, অইটাতো আমার রুম কিন্তু আমি আমার রুমে ডুকিতে ভয় পাইতেছি কেন?না ধুর আমার রুম আমি যদি ভয় পাই তাহলে কি হয়?এসব এসব ভাবতে ভাবতে রুমে ডুকে গেলাম,,,,রুমে ডুকা মাত্রই ইরা
আমার কলার ধরে বলে,,,,ওই তুই এতক্ষণ কই ছিলি,,,,?আমি যে তোর বউ,,,একলা বসে আছি,,,তোর কি কোনো খবর নাই?
আমিঃআশলে আমার কেমন জানি লাগতেছিল তাই,,,একটু দেরি করে ঘরে ডুকছি,,,
ইরাঃকেমন লাগতেছিল,,,
আমিঃলজ্জা লাগতেছিল,,,,
ইরাঃও,,লজ্জা আচ্ছা আগে দুইজন মিলে নফল নামাজ টা পড়ি,,তারপর,,,,
আমিঃতারপর,,কি?
ইরাঃপরে দেখা যাবে,,,এখন ওযু করে আস,,,
আমিঃহুম,,,ওযু করে আসতেছি,,,,,,
তারপর আমি আর ইরা নফল নামাজ শেষ করলাম,,,,
আমিঃআচ্ছা ইরা তুমি যে আমাকে ভালবাসতে,, কই কোনোদিন তো আমাকে বল নাই,,,
ইরাঃআমরা যেদিন তোমাদের বাসায় ভাড়া থাকতে আসি,,,,ওইদিন তোমাকে দেখে আমার পছন্দ হয়ে,,,,তারপর আস্তে আস্তে ভালবাসা শুরু হয়,,,,আমি ইচ্ছা করলে তোমাকে বলতে পারতাম,,কিন্তু তোমাকে বলি নাই,,,কারন তোমার যদি পড়ালেখায় সমস্যা হয় তাই,,,,,তোমার এখন অনার্স শেষ হয়ে গেছে,,,তাই ভাবলাম তোমাকে বিয়ে করে ফেলি,,,,,আরেকটা কথা হল তোমাকে নিয়ে একটা খারাপ সপ্ন দেখছি,,,,তাই ভয় হয় যদি তোমাকে না পাই তাই বিয়ে করে ফেলছি,,,
আমিঃ কি সপ্ন?
ইরাঃ না বলাই ভাল,,,,আবার যদি সত্যি হয়ে যায়?
আমিঃ হা হা হা,,,,সপ্ন কখনো সত্যি হয় না,,,,আচ্ছা তুমি আমাকে এত ভালবাস কেন?
ইরাঃজানি না তবে তোমার সরলতা আমাকে মুগ্ধ করেছে শুধু এটাই বলতে পারি আমি তোমাকে অনেক ভালবাসি,,,,তুমি যখন হাসো তখন তোমাকে পুরা বাচ্চাদের মত লাগে,,,,,তোমার চোখ গুল অনেক সুন্দর,,,আর তোমার ঠোঁট তো সেই লাগে,,,,পুরা বাচ্চাদের মত লাগে,,,,,আর মূলত তুমি একটু সহজ সরলভাবে চল,,,,,এইজন্যই তোমাকে আমি এত ভালবাসি,,,
আমিঃআরে তুমি তো আমাকে পুরা বাচ্চা বানিয়ে দিলা,,,,তো ম্যাডাম এই বাচ্চাকে সামলাতে পারবেন তো?
ইরাঃপারব মানে ভালমতই পারব,,,,আচ্চা তুমি তো বললে না,,,,যে তুমি আমাকে ভালবাস,,,
আমিঃএমন একটা বউ যে আমাকে এত ভালবাসে অথচ তাকে কি না ভালবেসে থাকা যায়,,,,,
ইরাঃতাহলে আমাকে এখন প্রোপজ কর,,,,
আমিঃআরে আমার লজ্জা লাগে তুমি বুজে নাও,,,
ইরাঃবাহ বাহ আমার বাবু তো আবার লজ্জাও পায়,,,আচ্ছা তোমাকে প্রোপজ করতে হবে আমি বুজে নিয়েছি তুমি আমাকে ভালবাস তাই তো?
আমিঃহুম,,,অনেক ভালবাসি
ইরাঃ তাহলে তো একটা কাজ করতে হয়?
আমিঃকি কাজ?
ইরাঃ তোমার লজ্জা ভাংতে হবে,,,,,( এটা বলেই ইরা আমাকে ধাক্কা দিয়ে বিছানায় ফেলে দেয় তারপর আমার বুকের উপর উঠে)
আমিঃএই তুমি যা করার আমি ঘুমানো অবস্থায় কইর,,,,,
ইরাঃকেন কেন?ঘুমানো অবস্থায় কেন?
আমিঃআশলে তুমি যেভাবে আমার দিকে তাকিয়ে আছো,,,, কেমন জানি লাগতেছে,,,,
ইরাঃও তাই নাকি,,,,সোজাসুজি বলতে পার না যে লজ্জা লাগে,,,,,ওরে আমার লজ্জাবতী জামাই,,,আস তোমার ঠোঁট গুলোকে একটু আদর করি,,,,,,তারপর আরকি আমাকে কিস করল,,তারপর আমার বুকে মাথা রেখে বলে আমাকে অনেক ভালবাসতে হবে,,,আর আমার কিছু শর্ত আছে,,,,
আমিঃ কি শর্ত?
ইরাঃ সকালে চা খাওয়ার সময় আমি তোমার কোলে বসে চা খাব,,,,আমরা ২জনেই এক কাপে চা খাব,,,,সকালে ঘর থেকে বের হওয়ার সময় আমাকে একটা কিস করতে হবে,,,খাওয়ার সময় আমি কিন্তু তোমার হাতেই খাব,,,মাজে মাজে ঘুরতে নিয়ে যেতে হবে,,,আর আমি যেকোনো সময় তোমাকে আদর করব,,,,,ছুটির দিন আমি যখন রান্না করব আমাকে জড়িয়ে ধরে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে,,,আর অন্য কোনো মেয়ের দিকে তাকানো যাবে না,,,,আর আমি যখন তখন তোমার ঠোঁটে আদর দিতে পারি,,,,তো আমার লজ্জাবাবু আমার শর্ত কি মানতে পারবেন?
আমিঃ হুম,,,মানতে পারব,,,,কিন্তু একটা জিনিস বাধা দিতে পারে,,,
ইরাঃকি?
আমিঃ তুমিতো জানই,,,
ইরাঃও লজ্জা,,,, সমস্যা নাই একটু পরেই তো তোমার লজ্জাকে শাস্তি দিব,,,,আশলে তোমার এই লজ্জাবোধ জিনিসটা আমার খুব ভাল লাগে,,,,,,
আমিঃআচ্ছা এমনও তো হতে পারে তুমি যাকে ভালবাস সে অন্য কাউকে ভালবাসে বা সে অন্য কাউকে চায়,,,তখন তুমি কি করবে?
ইরাঃআমার কিছুই করার থাকবে না,,,শুধুই এটাই কামনা করব যাতে তুমি সবসময় ভাল থাকো,,,আর আমাকে তোমার বাড়ির দাসী হিসেবে রাখবে,,, তবুও তোমার মুখ দেখে সারাজীবন কাটিয়ে দিতে পারব,,,(এটা বলে কান্না করে দিছে)
আমিঃ আরে আরে তুমি কান্না করতেছ কেন? আমিতো এমনেতেই বলছি,,,,কান্না থামাও,,,নাহলে আমি গেলাম,,,
ইরাঃ না না না,,,আমি কান্না করব না,,,,তারপরেও তুমি কোথাও যাবে না,,,(এটা বলে আমাকে শক্ত করে জড়িয়ে ধরে)
আমিঃআমিও তোমাকে ছেড়ে কোথাও যেতে পারব না,,,আমি যে তোমাকে বড্ড ভালবেসে ফেলেছি,,,,,,,
ইরাঃতাহলে চল কাজটা কম্পলিট করি?
আমিঃ কি কাজ?
ইরাঃতোমার সাথে একটু রোমান্স করতে হবেতো,,, তাহলে তোমার লজ্জা চলে যাবে,,,,(এটা বলে সে আমার মুখের পুরো কাছাকাছি চলে আসল,,আমি তার উষ্ণ নিশ্বাস অনুভব করতে পারছি)
আমিঃএই এই এই আগে লাইট বন্ধ কর,,,দেখতেছে তো,,
ইরা ভয় পেয়ে তাড়াতাড়ি লাইট বন্ধ করে দেয়,,,,তারপর বলে কে দেখতেছে?
আমিঃকি জানি আমার মনে হল কেউ আমাকে দেখতেছে,,,
ইরাঃতোমার টালবাহানা বন্ধ কর,,,আর আমার কাছে আস,,,,(এটা বলে আমাকে তার একেবারে কাছে নিয়ে যায়)
তারপর দুইজনে মিলে একটা ইতিহাস সৃষ্টি করলাম,,,,,,,,,,,,,,,,,,,
,,,,,,,,,,,,
এখন আমি আর ইরা সুখেই আছি,,,,এখনো সে আমাকে রোমান্টিক অত্যাচার করে,,,,অবশ্য আমার ভালই লাগে,,,,,
সবাই দোয়া করবেন আমরা যেন সবসময় ভাল থাকি,,,,,,,,,,,,
,,,,,,,,,,,,,,,,,,,

~~~~~~~~সমাপ্ত~~~~~~~~

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *