লোভী মেয়ে । ভালোবাসার ছোট গল্প

লোভী মেয়ে
writ…murad

মেয়ে:আমি break up চাই
ছেলে:berak up করলে তুমি খুশি হবে?
মেয়ে:হুম
ছেলে:তোমার খুশি মানে আমার খুশি,মনে হয় তুমি অন্য কাউকে পেয়ে গেছো।
মেয়ে:না,আমার বিয়ে ঠিক হয়ে গেছে।শুনেছি ছেলেটার অনেক টাকা আছে।
ছেলে:কিন্তু তুমি তো আমাকে কথা দিয়েছিলে,কোন দিন আমাকে ছেড়ে যাবে না।অন্য কাউকে বিয়ে করবে না।এতো তাড়া তাড়ি সব ভুলে গেলে।
মেয়ে:না ভুলিনি
ছেলে:তাহলে কেন বলেছিলে সেইদিন ওইসব কথা।
মেয়ে:আবেগের বসে।
ছেলে:কিন্তু যার সাতে বিয়ে ঠিক হয়েছে তাকে তুমি দেখেছো?
মেয়ে:না।
ছেলে:না দেখেই রাজি হয়ে গেলে,ছেলে কি করে জানতে পারি?
মেয়ে:চাকরি করে।
ছেলে:কিসের চাকরি?
মেয়ে:মাল্টিন্যাশনাল কম্পানিতে।
ছেলে:বেতন কতো পায়?
মেয়ে:১লক্ষ টাকা।
ছেলে:এতক্ষনে বুঝতে পারলাম যে তুমি কেন break up চাচ্ছো।
মেয়ে:কেনো?
ছেলে:কারণ,ছেলেটা অনেক বেশি বেতনের চাকরি করে,তোমাকে অনেক সুখে রাখবে।আর আমি তো মাত্র ১০হাজার টাকার বেতনের চাকরি করি।এই জন্য তুমি break up চাচ্ছো।
মেয়ে:হুম তাই।বুঝতেই পারছো যেহেতু এতো প্রশ্ন করছো কেনো?
ছেলে:তোমাকে জোর করে ধরে রাখার ক্ষমতা আমার নাই,তুমি ভাল থেকো,সুখে থেকো বাই,,,
এই বলে ছেলেটা রিলেশন break up করে চলে গেলো।
পরের দিন মেয়েটার কাছে একটা চিঠি আসে break upহওয়া ছেলেটার।
,,,,,
ভেবেছিলাম তোমাকে একটা সারপ্রাইজ দিবো,কিন্তু তার আগেই তুমি আমাকে সারপ্রাইজ দিলে।
তোমার সাথে যে ছেলেটার বিয়ে ঠিক হয়েছিল সে আর কেউ না,সে ছেলেটা আমি।
আমি তোমার কাছে আমার বেতনের অংকটা গোপন করেছিলাম,কারণ আমি দেখতে চেয়েছিলাম তুমি কম বেতনের একজন ছেলেকে কেমন ভালবাসো।
কিন্তু তুমি আমাকে না,টাকাকে ভালবাসো।তোমাকে ভুলতে অনেক কষ্ট হবে আমার।যানি সেটা সম্বভাব না,যদি না পারি তাহলে জীবনের আলোটাই নিভিয়ে দেবো।
কারণ,তুমি হয়তো আমার সাথে অভিনয় করছো,কিন্তু আমিতো জীবনের চাইতেও বেশি ভালবেসেছিলাম তোমাকে।
যারা টাকাকে ভালবাসে তাদের মনে কোনদিন মানুষের জন্য ভালবাসা থাকে না।সেটা হয়তো তোমাকে ভাল না বাসলে বুঝতেই পারতাম না।যে মেয়ে মানুষ কতোটা লোভী।সব মেয়েরা এক না।
কিছু কিছু মেয়ে মানুষ,আলাদা হয়,,,,,,,,
END….

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *