সিনিয়র বউ Part-4 | অভিমানী সিনিয়র বউ |

সিনিয়র বউ

Part-4


“”” কি হলো রুহী?? কিস কর ওকে ,,,
“”” আরে বাদ দে না ,,,
“”” বাদ দিবো কেন,,, হুম ,,,
“”” আমি কখনো দেখিনি নিজের স্বামী কে কিস করতে কেউ এতো লজ্জা পায়,,,,
“”” আচ্ছা বাদ দেন না,,
“”” ওকে ,, বাদ দিলাম,,,, রুহী পরশুদিন আমার জন্ম দিন আসবি কিন্তু ,,,
“”” আচ্ছা ,,,
“”” সুমন কে সাথে করে ,,,

কথাটা শুনে আমি রুহীর দিকে তাকালাম ,,, রুহীও আমার দিকে তাকালো,,,,

“”” কি রে একজন আরেকজনের দিকে তাকিয়ে কি দেখিস,,, আই কন্ট্রাক্ট করছিস নাকি,,,
“”” আরে তেমন কিছু না ,,, আচ্ছা আমরা আসবো,,,
“”” হুম ,,,
“”” আজ তাহলে আমরা আসি,,,

সবার সাথে বিদায় নিয়ে আমি আর রুহী বাসায় আসলাম ,,,,
বাসায় এসে দেখি অবন্তী ,,, কেমন করে যেন আমার দিকে তাকিয়ে আছে ,,,

“”” আরে অবন্তী তুমি ,,,, কেমন আছো ???

অবন্তী আমার হাত ধরে টেনে ছাঁদে নিয়ে এলো ,,,,

“”” আমায় এখানে নিয়ে আসলে কেন ,,,
“”” তুমি আসছো থেকে আমার সাথে দেখা করোনি কেন???
“”” একটু ব্যাস্ত ছিলাম ,,,
“”” ব্যাস্ত ছিলে??? কার সাথে ,,, তোমার বউয়ের সাথে ,,,,
“”” অবন্তী তোমার কি হয়েছে ,,, তুমি এভাবে কেন কথা বলছো,,, ঠিক আছো তো,,,
“”” আমি ঠিক আছি ,,,
“”” তাহলে এসব কি বলছো,,,,
“”” দেখো সুমন তুমিও ভালো করে জানো আমি তোমায় ভালোবাসি ,,,
“”” মানে ,,,,
“”” তুমি জানো না,,,
“”” না মানে হ্যা,,, কিন্তু আমি তো এখন বিবাহিত ,,,,
“”” তো কি হইছে ,,,,
“” দেখো আমি অন্য আর দশটা ছেলের মতো না,,, যে ঘরে বউ রেখে বাইরে অন্য মেয়ের সাথে ,,,,,
“”” আমি কিছু জানি না ,,, এতদিন তো তোমাদের কিছুই মিলতো না,, এখন আবার এতো তাড়াতাড়ি সব কিভাবে ঠিক হয়ে গেল ,,,
“”” আরে বাবা স্বামী স্ত্রী এর মাঝে ঝগড়া কি সারা জীবন থাকে,,,
“”” এসব কিন্তু আমার একদম ভালো লাগছে না ,,, আমি শুধু তোমায় চাই ,,,
“”” পাগল হয়ে গেছো তুমি ,,, তুমি এখনো ছোট ,,,
“”” আমি ছোট নেই ,,, আমি এখন বড় হয়ে গেছি,,,
“”” তাই ,,, আরও বড় হও,,, তারপর এসব নিয়ে ভাবা যাবে,,,
“”” তুমি ওই মেয়ের সাথে মিশবে না বলো,,,,
“” আচ্ছা বাবা,,,

অবন্তী চলে গেল ,,, আমি কিছুক্ষণ ছাঁদে থেকে আবার নিচে আসলাম ,,,,
রুমে এসে দেখি রুহী রুমে নেই ,,, তাই একটু শুইলাম ,,,,

“”” মেয়েটা তোমায় অনেক ভালোবাসে তাই না ,,,
“”” কে,, ওহহ তুমি ,,,
“”” আমি সব শুনেছি ,,, ,,,
“”” আরে ও তো ছোট মেয়ে ,,,
“”” হুম ,,, আমি চলে যাওয়ার পর কি ওকে বিয়ে করবে ,,,,
“”” একটা কথা বলবো???
“”” হুম বলো,,,
“”” এই মনে একটা ছবি আকা হয়ে গেছে ,,, সেটা মুছে ফেলা শুধু কঠিন না অসম্ভব ,,,,
“”” তাই কার ছবি ,,,
“”” মনে করো তোমার,,,,

রুহী চুপ হয়ে গেল ,,,

“”” আরে আমি মজা করলাম ,,,
“”” ওহহহ,,, আমি ভাবলাম সত্যি সত্যি ,,, তুমি পারও বটে ,,,

মুখে যে হাসিটা ফুটে উঠছে সেটার জন্য আমি আমার মনের হাজার সত্যি কথা কে মিথ্যে এবং মজায় পরিনত করতে পারবো,,,,


শুয়ে শুয়ে ফেসবুকিং করছি ,,, হঠাৎই মাঝ রাতে বৃষ্টি শুরু হলো,,,, শুধু বৃষ্টি না অনেক বিদ্যুৎ ও চমকাচ্ছে,,,,
আমি আমার মতো ফেসবুকিং করেই যাচ্ছি,,,,
রুহীখাট থেকে নেমে আমার পাশেএসে বসলো,,,,

“”” কি হলো,,, তুমি নিচে আসলে যে,,,,
“”” তুমি একা একা বসে আছো,,, তাই ভাবলাম তোমায় কম্পানি দেই,,,
“”” তাই,,,
“”” হুম,,,
“”” এই যে ম্যাম আমি কিন্তু শুয়ে আছি,,,
“”” যাই হোক,, ঐ একই তো হলো,,,,
“”” তাই,,, আসল কথা বলো যে বাইরে বিদ্যুৎ চমকাচ্ছে,,, ভয় পাচ্ছো,,,
.
এমন সময় হঠাৎ বাজ পড়ল,,,,
সাথে সাথেই রুহী আমায় জড়িয়ে ধরলো,,,
[ads1]
“”” এভাবে আর কতক্ষণ জড়িয়ে ধরে থাকবে,,,
“”” ভয় লাগছে তো,,,
“”” এভাবে থাকলে তো আমাদের প্রেম হয়ে যাবে,,,,
“”” কি বলো এসব উল্টো পাল্টে,,,
“”” আরে মজা করলাম,,, আমি তোমার বন্ধু না,,,,
“”” হুম,,,

পরের দিন টাও কেটে গেল,,,
আজ রুহীর বান্ধবীর জন্মদিন,,,,
সন্ধ্যায় আমি আর রুহী বাসা থেকে বের হলাম,,,
বাসায় বলে বের হলাম,,, আজ নাও ফিরতে পারি,,,,

পার্টিতে সবাই ড্রিংক করছে,,,, শুধু আমি আর রুহী দাড়িয়ে আছি,,,

“”” আরে তোমরা এখানে কি করো,,, এই নাও এনজয় করো,,,
“”” আমি এসব খাই না,,,
“”” আরে আজ খাও,,, এখানেকেউ খায় না,,, কিন্তু আমার জন্মদিন জন্য সবাই খাচ্ছে,,,,


আমাকেও খাওয়ালো সাথে রুহীকেও,,, আমি অল্প কিন্তু রুহী অনেক বেশি খেয়েছে,,,,
কেমন জানি পাগল গুলোর মতো পাগলামী করছে,,,,

রুহী আর আমার থাকার জন্য একটা রুম দেখিয়ে দিলো,,,
আমি রুহীকে নিয়ে কোনো রকমে রুমে আসলাম,,,
এসে ওকে বেডে শুইয়ে দিয়ে আমি পাশের সোফায় শোয়ার জন্য গেলাম,,,

“”” ঐ সুমন এদিকে আয়,,,
“”” কিছু বলবে,,,
( রুহী উঠে আমার কলার ধরলো,,, )
“”” কি করছো এসব,,,
“”” বউকে রেখে ছাঁদে একটা মেয়ের সাথে ঘন্টার পর ঘন্টা লাইন মারিস,,,,
“”” মানে,,,,
“”” ঘরে বউ আছে সেটা মনে ছিলো না,,, কেন রে তোর বউ দিয়ে হয় না,, আরও মেয়ে লাগবে তোর,,,
“”” কি বলছো তুমি এসব,,, আমি গেলাম,,,
“”” কোথায় যাস তুই,,,
“”” সোফায়,, ঘুমাবো,,,
“”” না,,,
“”” না মানে,,,
“”” তুই আজ আমার সাথে ঘুমাবি,,,,
“”” কিন্তু,,,
“”” কোনো কিন্তু শুনবোনা,,, অনেক দিন দূরে দূরে ছিলি,,, কিছু বলি না বলে,,,,


এরপর যা হলো তার জন্য আমি মোটেই প্রস্তুত ছিলাম না,,,, আমি কখনোই ভাবি নি ও এসব করবে,,,, ,,,


এখন ও শুয়ে আছে,,,
আমি ওর পাশে বসে শুধু ভাবছি,,,
এটা কি ঠিক হলো।।
ও না হয় নেশায় ছিলো,,, কিন্তু আমি তো ঠিক ছিলাম,,, এটা আমার মোটেই উচিৎ হয় নি,,,, না জানি যখন বুঝতে পারবে তখন কি করবে,,,,
.
..

….সিনিয়র বউ
,
আমি শুয়ে পড়লাম ,,, শোয়ার সাথে সাথেই রুহী আমায় জড়িয়ে ধরলো ,,, একটু পরে আমিও ঘুমিয়ে পরলাম ,,,
সকাল বেলা কারো কান্নার শব্দে ঘুম ভেঙে গেলো,,,

“”” রুহী তুমি কাঁদছো কেন ???
“”” আমার ড্রেস কোথায়,,,,
“”” ( আমি চুপ হয়ে গেলাম)
“”” কথা বলছো না কেন ,,,
“”‘ আসলে কাল রাতে ,,,,
“”” কি??? আমার সব শেষ হয়ে গেছে ,,,
“”” রুহী প্লিজ কান্না থামাও ,,,
“”” ঠাসসসসস,,, তোর তো সাহস কম না তুই আমায় স্পর্শ করিস,,,
“”” না মানে ,,,
“”” চুপ একদম চুপ থাক ,,, তুই মানুষ?? তুই সুযোগ পেয়ে আমার,,,,
“”” দেখো আমি ইচ্ছে করে কিছু করি নি,,,,
“”” চুপ থাক ,,, একটা কথা ও বলবি না,,, তোকে আমি বিশ্বাস করে বন্ধু করেছিলাম আর তুই ,,,,
“”” এটাতে আমাদের দুজনের কারোরি কোনো দোষ নাই ,,,,
“”” তুই চুপ থাক ,,,
“”” আমি ,,,,
“”” তোর কথা শুনতেও আমার ঘৃণা হচ্ছে,,,
“”” দেখো ভুল বুঝো না আমায়,,,, রুহী,,,
“”” তোর ঐ নোংরা মুখে আমার নাম ভুলেও উচ্চারণ করবি না,,, আমি তোর সাথে কোনো কথা বলতে চাই না ,,,, ,,,


রুহী আমার সাথে আর কোনো কথা বলে নি,,,
দুপুরে আমরা বাসায় আসলাম ,,,
রুহী বাইক থেকে নেমে সোজা রুমে আসলো ,,,

শুধু মাত্র আমার ভুলের জন্য আমি আবার বন্ধুত্বটাও হারালাম,,,
নিজেকে কন্ট্রোল করা উচিত ছিলো আমার,,,
কিন্তু রুহী এতোটা রিয়েক্ট না করলেও পারতো,,,
আমি তো ওর স্বামী ,,,
এটা তো আমার অধিকার ,,,
অধিকার দেখিয়ে কি হবে ও তো আমায় স্বামী হিসাবে মানেই না,,,


বিকেল বেলা ছাঁদে একা একা বসে আছি
আমার ঘাড়ে কারো হাতের স্পর্শ অনুভব করলাম ,,,
খুব আগ্রহ নিয়ে পিছনে তাকালাম ,,,
ভেবেছিলাম হয়তো রুহী হবে ,,, কিন্তু না,,, অবন্তী দাঁড়িয়ে আছে ,,,

“”” তোমার সাথে আমার কথা আছে ,,,
“”” এখন মুড ভালো নেই ,, পরে বলিও,,,
“”” আমার এখনি বলতে হবে ,,,
“”” বললাম না এখন তোমার কথা শোনার মুড নেই ,,, যাও এখন থেকে ( একটু বেশি রেগে গিয়ে )


রেগে যাওয়ায় অবন্তী অনেক ভয় পেয়েছে,,,
এ মেয়ে আবার একটু ভয় পেলে আপনাআপনি চোখে পানি চলে আসে,,,
অবন্তী কান্না করতে করতে চলে গেল ,,,

মেয়েদের চোখে এতো পানি আসে কোথায় থেকে ,,,
কষ্টে ভিতর টা পুড়ে ছাই হয়ে যাচ্ছে তবুও চোখ দিয়ে এক ফোটা পানি বের হচ্ছে না,,,
শুনেছি কান্না করলে নাকি বুকের ব্যাথ্যা হালকা হয়
এতো করে কান্না করার চেষ্টা করছি কিন্তু কিছুতেই চোখে পানি আসছেই না,,,

আচ্ছা রুহী কি এখনও কান্না করছে ,,,

এসব উল্টো পাল্টে ভাবতে ভাবতে সন্ধ্যা পেরিয়ে রাত হয়ে গেছে ,,,

আম্মু অলরেডি দুই বার ডেকে গেছে খাওয়া জন্য ,,,
আবার আসছে ,,,

“”” কি রে তোদের কতবার করে ডাকা লাগবে ,,, তুই ও আসছিস না রুহীও আসছে না ,,, তোর আব্বু না খেয়ে তোদের জন্য বসে আছে ,,,
“”” রুহী খেতে আসে নি ,,,,
“”” না,, কয়বার ডাকলাম রুম থেকে বের হয়নি ,,, দরজা বন্ধ করা,,,
“”” ওহহ,,
“”” তোদের মাঝে কি ঝগড়াঝাঁটি কিছু হয়েছে ,,,
“” না আম্মু তেমন কিছু না ,,, তুমি যাও আমি রুহীকে নিয়ে আসছি ,,,
“” তাড়াতাড়ি আয়,, তোর আব্বু বসে আছে একসাথে খাবে বলে,,,
“”” আচ্ছা ,,,

আম্মু চলে গেল ,,,
আমিও আর বসে না থেকে উঠে আসলাম ,,,

আমার রুমের সামনে দাড়িয়ে আছি ,,, দরজা ভিতর থেকে বন্ধ ,,,
বেশ কয়েক বার ডাকার পর রুহী দরজা খুলে দিল ,,,

দরজা খুলে দিয়ে রুহী আবার শুয়ে পরলো,,,

আমি রুমে হাটাহাটি করছি,,, কি বলবো??
কোথায় থেকে কথা শুরু করবো কিছুই বুঝতে পারছি না ,,,,


“”” আব্বু খেয়ে ডাকছে ,,,,
“”” ( কিছু বলছে না )
“”” চলো,,,
“”” আমি যাবো না ,,,
“”” দেখো আমি বলছি তো ওটা আমি ইচ্ছে করে করি নি,,,
“”” আমি যাবো না বললাম তো,,,
“”” দেখুন আপনি আমায় যা বলবে আমি তাই করবো কিন্তু প্লিজ এখন চলো,,,
“”” যা বলবো তুই তাই করবি,,,
“”” হুম ,,,
“”” আমি আজকের পর থেকে আর তোর মুখ দেখতে চাই না,,,
( কথাটা শুনে কেমন জানি মন খারাপ হয়ে গেল )
“”” আচ্ছা ,, তাই হবে ,,,
“”” আরও একটা শর্ত আছে ,,,
“”” হুম বলেন ,,,
“”” এক বছর পর আমার ডিভোর্স লাগবে ,,,
( রুহী এমন কিছু বলবে সেটা আমি কল্পনা ও করতে পারি নি ,,, )
“”” আচ্ছা ,,, তাই হবে,,,
( চোখের পানি অনেক কষ্টে লুকিয়ে কথা টা বললাম )


রুহী উঠে ফ্রেশ হয়ে খাবার টেবিলে যাচ্ছে ,,,

“”” একটা কথা বলবো???
“”” কি???
“”” আমার সাথে যেমনই করেন না কেন আব্বু আম্মুর সাথে প্লিজ আগের মতো থাকবেন,,,,
“”‘ হুম ,,,,

রুহী খেতে আসলো,,,,
আমিও আসলাম ,,,,

খাওয়া শেষ করে রুহী রুমে আসলো ,,,
আমি কি রুমে যাবো???
না,,,,
রুহীতে আমার মুখ দেখতে চায় না ,,,
আমি ছাদে আসলাম,,,,

আকাশের দিকে তাকিয়ে রুহীর কথা ভাবতে ভাবতে কখন যে চোখ দিয়ে পানি ঝড়া শুরু হয়ে গেছে বুঝতে পারি নি ,,,,


“”” সুমন তুই ঘুমাস নি???

কথাটা শুনে চমকে গেলাম,,,
পিছনে তাকিয়ে দেখি আম্মু,,,
চোখের পানি আড়াল করতে চাইলাম,,, কিন্তু পারলাম না,,
.
..

….

..
.
To be continue

সিনিয়র বউ ৫ম পর্ব

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *