সিনিয়র বউ Part-9 _ অভিমানী ভালোবাসার গল্প

সিনিয়র বউ
Part-9
,
“”” আচ্ছা বলো,, কি এমন কথা যা শুনলে সুমনকে ভুল বুঝবো না,,, বলো শুনি,,,
“”” আব্বু তুমি সুমন কে যেমন ভাবো ও তেমন না,,,
“”” মানে ,,,
“”” তুমি ভাবো ও দায়িত্ব জ্ঞান হীন,,, নিজের দায়িত্ব বোঝে না ,,,
“”” হুম ,, ঠিকই তো বলি,, যদি বুঝতো তবে তোমাদের সাথে এমন করতে পারতো না,,,
“”” ও আমাদের সাথে কিছু করে নি তবে আমি ওর সাথে অনেক কিছু করেছি,,,
“”” মানে ,,,
“”” বিয়ের পর থেকে আমি ওর সাথে বাজে ব্যবহার করে আসছি,,, কখনো ওর সাথে মিষ্টি করে কথাও বলি নি ,,,,
“”” কিন্তু আমাদের সামনে যেটা করতে ,,,
“”” ওটা শুধুই অভিনয় ছিলো,,, সেটাও ওর রিকুয়েষ্ট এ,,,,
“”” মানে তুমি আমাদের সাথে যে বিহেব করছো ওটাও অভিনয় ছিলো,,,
“”” না,, তোমাদের আমি খুব সহজেই আপন করে নিতে পেরেছি ,,, কিন্তু ওকে পাই নি,, তাই দিনের পর দিন ওর সাথে বাজে ব্যবহার করেছি,,,
“”” কিন্তু কেন,,,
“”” যখনি ওকে আপন করতে চেয়েছি,, ওর ভালোবাসায় নিজেকে জড়াতে চেয়েছি তখনি আমার মনে হতো আমি ওকে ঠকাচ্ছি,,,
“”” ( আব্বু চুপ হয়ে গেছে)
“”” জানো আব্বু সুমন আমায় অনেক ভালোবাসে,,, ও প্রতি নিয়ত আমার কাছে আসার চেষ্টা করেছে ,,, কিন্তু আমি ওর সাথে খারাপ ব্যবহার করে ওকে দূরে ঠেলে দিয়েছি,, শুধু যাতে ওর প্রতি আমার দুর্বলতা প্রকাশ না পায়,,,,
“”” কিন্তু রোজাকে দেখতে ও তো হাসপাতালে যায় নি ,,,
“””” ভুল জানো আব্বু তুমি ,,, আমি নয় সুমনই রোজাকে হাসপাতালে নিয়ে গেছলো,,,,
“”” কি???
“”” হ্যাঁ ,,, ওকে আমি জোর করে হুমকি দিয়ে বাসায় পাঠিয়ে দিয়েছি,,,
“””” ওহহহ,,,
“”” জানো আব্বু ঐ দিন ও অনেক কেঁদেছিল ,,, কিন্তু আমি নিজের কান্না চেপে রেখেছিলাম,, শুধু মাত্র ওকে এটা বোঝানোর জন্য যে আমি ওকে ভালোবাসি না ,,,, কিন্তু চিৎকার করে বলতে ইচ্ছে করছিলো আমি যেতে বললেই কি যেতে হবে ,, রোজা তো তোমারও মেয়ে,,, আমি তো তোমার বউ,,, একটু অধিকার দেখাতে পারো না,,,
“”” আচ্ছা ঠিক আছে ,,, কেঁদো না ,,,,
“”” জানো আব্বু ও ঐদিন খুব করে রোজাকে দেখতে চেয়েছিলো,,,, কিন্তু আমি ওকে দেখতে দেই নি,,, এমন কি ছবিও তুলতে দেই নি ,,,
“”” ( আব্বু কিছু বলছে না)
“”” রোজাকেও বলি নি ওটা ওর আব্বু ,,, সেদিন হয়তো সুমন জীবনের সব থেকে বেশি কষ্ট পেয়েছে ,,,, যেদিন রোজাকে বলেছিলাম ওটা তোমার আংকেল ,,,
“”” চোখ মোছ পাগলী,,,, ধীরে ধীরে সব ঠিক হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ ,,,
“”” সুমনকে ভুল বুঝো না আব্বু ও অনেক ভালো একজন মানুষ ,,,,
“”” আচ্ছা ঠিক আছে ,
( আব্বুর চোখের কোনা দিয়ে কয়েক ফোটা পানি বেরিয়ে গেলো )
“”” তোমরা যাও,,, রোজা নয়তো কান্না করবে ,,,
“”” তুমি যাবে না ,,,
“”” আমি গেলে ওর সাথে কে থাকবে ,,,
“”” তোমাদের না ডিভোর্স হয়ে গেছে ,,, তাহলে তুমি ওর সাথে থাকবে মানে,,,
“”” ডিভোর্স হয় নি আব্বু ,,
“”” মানে ,,,
“”” সুমন ডিভোর্স পেপারে এখনো সাইন করে নি,,,,
“”” ওহহহ,,,
“”” আমিও আব্বু ওকে অনেক ভালোবাসি ,,, কিন্তু কখনো প্রকাশ করা হয় নি ,,, না জানি ওকে কতো কষ্ট দিয়েছি
“”” সমস্যা নেই ,, এখন সবকিছু ঠিক করে নাও,,,
“”” চেষ্টা করবো আব্বু ,,,
“”” আমি আর তোমার আম্মু চলে যাচ্ছি ,,,
“”” আচ্ছা ,,,


ওহহ আচ্ছা ,,
তাহলে কাল ওদের এসব কথা হয়েছে ,,,
সব ঠিক হয়ে যাবে তাই না ,,,,
এতো দিন সবাই মিলে আমায় অনেক কষ্ট দিছো,,
এবার আমার পালা,,,

তাৎক্ষণিক একটা আইডিয়া মাথায় আসলো,,
সেই আইডিয়া অনুযায়ী প্ল্যান করলাম একটা,,,

আংকেল কে ফোন দিলাম ,,

“”” সুমন কেমন আছো ,,,
“”” ভালো,, আপনি ,,,
“”” আমিও,,, হঠাৎ ফোন দিলে যে,,, কোনো সমস্যা ,,,
“”” সমস্যা না,, তবে আপনার সাহায্য লাগবে ,,
“”” এভাবে বলার কি আছে বল কি করা লাগবে ,,,
“”” কাল তো সোমবার ,,
“”” হুম তো,,,
“”” আমার মেয়ে ,, মানে রোজার জন্ম দিন ,,,
“”” কি বলিস,, ভালো তো,,,
“”” কাল আমার পরিবর্তে আপনি যাবেন ,,
“”” তুই যাবি না ,,,
“”” না,,,
“”” কেন,,,
“”” সেটা পরে বলবো ,,, যদি কেউ জানতে চায় আমি কোথায় বলবেন ,,, কিছু একটা বলে ম্যানেজ করে নিয়েন,,,
“”” কিন্তু কি বলবো,,,
””” বলবেন আমি ব্যাবসার কাজে হায়দ্রাবাদ গেছি,,,
“”” মিথ্যা বলবো,,,
“”” এমন ভাব নিচ্ছেন যেন মিথ্যা বলেন না,,, আজকেই চলে আসেন,,,
“” আচ্ছা ,,,


সরি রোজা মা,,, তোমার জন্ম দিনে যেতে পারলাম না ,,
শুধু তোমার আম্মুকে একটু কষ্ট দেওয়ার জন্য ,,,
চিন্তা করিও না ,, পরের বার এর থেকে অনেক বড় করে জন্ম দিনের পার্টি করবো
কিন্তু তবুও তোমার আম্মুকে এটা বোঝানো দরকার ইগনোর করার যন্ত্রনা কতটা,,,
ওকে আমি কষ্টের চরম সীমা পর্যন্ত নিয়ে যাবো,,,
ভালোবাসার পরও আমায় যে কষ্ট দিছে সেটা আমি ওকে উপলব্ধি করাবো,,,


দুপুর হতে না হতেই রুহীর ফোন ,,,

“”” হ্যালো ,,,
“”” সকালে নাস্তা করছিলে,,,
“”” হুম ,,,
“””ঔষধ খাইছো,,,
“”” এখন কেমন আছো ,,,
“”” পেইনটা একটু কমছে মনে হচ্ছে ,,
“”” আমি নয়ন কে দিয়ে দুপুরের খাবার পাঠাচ্ছি ,,, ,,,
“”” তোমার পাশে কে কথা বলে ,,,
“”” আব্বু এসে রোজা কে দিয়ে গেলো,,,
“”” ওহহ,, তাহলে ওকেও পাঠিয়ে দিও,,,
“”” আচ্ছা ,,,,
“”” সকালে আব্বু নাকি ফোন দিছলো,,, রিসিভ করো নাই ,,
“”” বুঝতে পারি নি ,,,
“”” ওহহ,, আচ্ছা ,, সাবধানে থেকো,, আবার যেন পায়ে লাগিও না,,,
“”” আচ্ছা ,,,


ফোন কাটলাম ,,
আহারে কি আদর,,
এমন আদর যদি বিয়ের পরে থেকে করতো তাহলে আমার জীবনটাই বদলে যেত,,,
এতদিনে আমাদের বাসায় ও একটা বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম থাকতো,,,,
থুক্কু কি উল্টো পাল্টে বলি ,,,
১১টা কেমনে সম্ভব ,,,


বসে বসে এমন অনেক উল্টো পাল্টে ভাবছি,,,
এমন সময় কলিং বেল ,,,
উঠতে যদিও কষ্ট হচ্ছে ,,
তবুও উঠলাম,,,
রুমের দরজায় আসতে না আসতেই দেখি নয়ন বাসার ভিতরে ,,, সাথে রোজাও আছে,,, ,,,

“”” নয়ন তুমি ভিতরে আসলে কিভাবে ,,,
“”” রুহী ম্যাম বাসার চাবি দিছে ,,,
“”” তার মানে বাইরে থেকে লক করা ছিলো,,,
“”” হুম ,, এই নেন স্যার ,,,
“”” ধন্যবাদ ,,
“”” এখন কেমন আছেন,,
“”” মোটামুটি সুস্থ ,,,,
“”” আমি আসি তাহলে,,,
“”” আচ্ছা ,,,, বাইরে লক করিও না ,,,
“”” আচ্ছা স্যার,,,


নয়ন চলে গেল ,,,,

“””রোজা আম্মু এদিকে আসো,,,
“””” তোমার পা ঠিক হয় নি,,
“”” হয়েছে তো,,,
“”” কাল আমার জন্ম দিনে আসবে না,,,
“”” কাল তোমার জন্ম দিন ,,,
“”” হুম ,, জানো আম্মু বলছে কাল আমার বাপি আসবে ,,,,
“”” ( সরি আম্মু কাল তোমার বাপি আসবে না )
“”” কথা বলছো না কেন আংকেল ,,,,
“”” তুমি তোমার বাপিকে দেখছো??
“”” ছবি দেখছি,,,
“”” কেমন দেখতে ,,,
“”” তোমার মতো ,,,
“”” আমার মতো ,,, তাহলে আমায় একবার বাপি বলে ডাকবে ,,,
“”” কেন,,,
“”” ডাকলে তোমায় অনেক গুলো চকলেট কিনে দিবো,,,
“”” আম্মু বলে চকলেট খেলে দাঁতে ইয়া বর পোকা হয়,,,

একথা তো আগে আমি অবন্তী কে বলছিলাম ,,,,

“”” আচ্ছা ঠিক আছে তুমি যা চাও তাই দিবো,,,

ল্যাপটপ টা নিয়ে অনলাইনে রোজাকে অনেক গুলো ড্রেস এবং খেলনা দেখালাম ,,,
এর মাঝে বেশ কিছু জিনিস ও পছন্দ করলো,,,
বিশেষ করে একটা ড্রেস আমার খুব পছন্দ হলো,,
এটাতে রোজাকে পরীর মতো লাগবে ,,,
এরপর রুহী আব্বু আম্মু সবার জন্য শপিং করলাম,,,

রোজার সাথে সারাটা দিন অনেক সুন্দর কাটলো,,,
আমার সাথে খেলতে খেলতে আমার বুকে মাথা রেখে ঘুমিয়ে পরেছে ,,,
ওর সাথে সাথে আমিও ঘুমিয়ে পরেছি,,,
কলিং বেল এর শব্দে ঘুম ভেঙে গেলো,,,
অনেক কষ্টে উঠে দরজা খুলে দিলাম
দরজা খুলে দেখি রুহী রিয়া এবং আরও কয়েক জন আসছে ,,,
সাথে নয়ন ও,,,

“”” স্যার এনারা সবাই আপনাকে দেখতে আসছে ,,,
“”” ওহহ,, ভিতরে আসুন,,,,


বসাইকে নিয়ে আমার রুমে আসলাম,,
আমার রুমে বসার জন্য সোফা আছে ,,,
সবাই সোফায় বসলো,,, কিন্তু রিয়া আমার পাশে বিছানায় এসে বসলো,,,

এতক্ষণ রুহীর দিকে নজর যায় নি,,
ওর দিকে চোখ দিতেই দেখি রাগে লাল হয়ে গেছে,,,,
.
.

রিয়া আমার পাশে বসে আছে এটা দেখে রুহী এতটা রাগ করবে ভাবি নি ,,,
আমি উঠে জায়গা চেঞ্জ করতে যাবো সেই সময় রিয়া আমার হাত ধরে ফেললো,,,
আমার চোখ তো কপালে উঠে গেলো,,
এই মেয়ে এতো সাহস পেলো কিভাবে ,,,
আড় চোখে রুহীর দিকে তাকালাম ,,
এবার মনে হচ্ছে ওর চোখ দিয়ে আগুন বেরিয়ে আসছে ,,,,

“”” উঠে কোথায় যাচ্ছো,,,
( এবার পুরো আকাশ যেন আমার মাথায় ভেঙে পরলো,,, এ মেয়ে আমায় তুমি করে বলছে ,,, কিন্তু তবুও আমি কিছু বললাম না ,,, কারণ একেই আমার কাজে লাগাতে হবে ,,, একে দিয়েই রুহীকে জ্বালাতে হবে,,,, )
“”” কোথাও না,,, ঐ জায়গায় ,,, তাহলে একটু আরাম করে বসতে পারবো,,,
“”” ওহহ,, আচ্ছা চলো আমি নিয়ে যাচ্ছি ,,,,
( ওর পাশে থেকে সরে বসার জন্য আসলাম কিন্তু কোনো লাভ হলো না,, আবার ও আমার পাশে বসলো,,,, )
“”” যখন শুনেছি তোমার একসিডেন্ট হয়েছে তখন থেকে কিছু ভালো লাগছে না ,,,
“”” কেন কেন ???
“”” জানি না,,, তবে কোনো কাজ ঠিক করে করতে পারি নি,,,,
( মেয়ে মানুষ এতো ঢং করতে জানে আগে জানতাম না ,,, ইচ্ছে করছে কানের নিচে দেই একটা,,,
কিন্তু রুহীকে জ্বালাতে হলে ওকে আমার দরকার ,,
তাই আর কোনো রিয়েক্ট করি নি ,,, হাসি মুখে ওর সব ঢং দেখে গেলাম,,,, )

আমি কিছু বলতে যাবো এমন সময় রোজা ঘুম থেকে উঠলো,,,

“”” সুমন এই মেয়ে কে???
( এই মেয়ে তো আমায় মেরে ফেলবে,,, এবার আমার নাম ধরে ডাকছে ,,,,
রুহীর নিশ্বাসের হার বেরে গেছে ,,,
রাগে শুধু গিজগিজ করছে ,,)
“”” ও হচ্ছে আমাদের রুহী ম্যাডামের মেয়ে ,, ( নয়ন)
“”” তাই , বাচ্চা টা দেখতে অনেক কিউট তো,,,
“”” জানি আমি ,,, ( রুহী)
“”” তাহলে কাল তোমার জন্ম দিন,,,
“”” হুম ,, তুমি আসবে না ,, ( রোজা)
“”” অবশ্যই আসবো,,, সুমন একটা কথা বলি,,,
“” হুম বলো,,,
“”” এই বাচ্চা টা পুরাই তোমার মতো দেখতে ,, তোমার মতোই কিউট,,,
“”” ধন্যবাদ ,, দেখতে হবে না মেয়েটা কার,,,,
( সবাই হা করে আমার দিকে তাকিয়ে আছে ,,,
কি একটা কথা বলে মাইনকা চিপায় পরে গেলাম ,,, )
“”” আরে বাবা এভাবে দেখার কি আছে আমাদের রুহী ম্যাডামের মেয়ে ,,,
“”” স্যার তাহলে আমরা আজ আসি,,,,
( রুহী সিচুয়েশন টা সামলে নেয়ার জন্য এই কথা টা বললো,,, )
“”” আপনারা যান আমি একটু পরে যাচ্ছি ,, ( রিয়া )

রুহী আর কিছু না বলে ফোনে টাইপিং করতে শুরু করলো ,,
একটু পরে আমার ফোনে মেসেজ আসলো,,

“””” তাড়াতাড়ি ঐ হারামজাদী কে চলে যেতে বলো,, আমার কিন্তু একদম ভালো লাগছে না ,,, ও যদি এখন চলে না যায় তাহলে তোমার বারোটা বাজিয়ে দিবো,,,, আমি থাকতেই চলে যেতে বলো,,,

আমিও রিপ্লাই করলাম

“”” কেন জ্বলিতেছে,,,
“”” মানে ,,, বেশি বুঝিও না ,,, নয়তো ,,,
“”” নয়তো কি ???


“”” সুমন কি করো ফোনে ,,,
“”” কিছু না ,,, আপনারা সবাই তাহলে আসেন,,, আমার একজন আংকেল আসবে,, আর কাল তো অফিস বন্ধ,,,
“”” আচ্ছা বাই ভালো থেকো,,, রুহী ম্যাম চলেন,,,,
“”” আপনারা আগান,,, আমি রোজার কাপড় গুলো গুছিয়ে নিয়ে আসছি ,,,

( আজিব তো,,, রুহী আবার রোজার কাপড় কই পেলো যেগুলো ও গুছাবে,,, )

সবাই চলে গেলো,,,

“”” রোজা আম্মু দেখো তো পাশের রুমে তোমার কোনো জামা আছে কি না,, ভালো করে খুজবে ,,,
“”” রোজার তো কোনো কাপড় নেই এখানে ,,
“”” সেটা আমিও জানি,,
“”” তাহলে ওকে কি খুঁজতে পাঠালে,,,
“”” ওকে তো শুধু রুম থেকে বের করলাম ,,,
“”” কেন,,,
“”” ও থাকলে তো তোমার ক্লাস নেওয়া হবে না,,,,,
“”” ক্লাস মানে ,,,

আমি বেডে বসে ছিলাম ধাক্কা দিয়ে শুইয়ে দিলো,,,
এরপর রুহী আমার উপর শুয়ে পরলো ,,,

“”” কি করছো এসব ,,, দরজা লক করা নেই কেউ আসতে পারে ,,,
“”” কেউ আসবে না ,, সবাই চলে গেছে ,,,
“”” তো এখন আপনি কি করবেন ,,,
“”” আমার স্বামীর সাথে আমি কি করবো সেটা আপনাকে বলতে হবে ,,,
“”” ওহহ আচ্ছা ,,,
“”” কি সমস্যা তোমার,,,
“”” কি সমস্যা ??
“”” খুব তো অন্য মেয়ের সাথে টাংকি মারো,,,
“”” তাই কখন ,,,
“”” এখনি,, রিয়ার সাথে ,, ইচ্ছে করছিলো হারামজাদির চুল গুলো টেনে ছিড়ে দেই,,,
“”” এতো দিন কোথায় ছিলে,,,
“”” সরি,,
“”” এতো দিন যে কষ্ট পেয়েছি সেটার কি হবে ,,
“”” সরি,,, বললাম তো,,, আর কখনো তোমায় ছেড়ে যাবো না ,,,
“”” সরিতে কি সব কষ্ট দূর হয়ে যায়,,, এবার আমি যদি তোমায় ছেড়ে চলে যাই,,,
“”” তাহলে তোমার যতো খুশি আমায় কষ্ট দিয়ো,,, তবুও প্লিজ ছেড়ে চলে যেও না ,,,

আমি কিছু বলবো এমন সময় নয়ন হঠাৎ করেই রুমে আসলো,,,
রুহী তখন ও আমার বুকের উপর শুয়ে ,,,
নয়নকে দেখে রুহী তাড়াতাড়ি উঠে পাশের রুমে চলে গেল ,,,


“”” নয়ন তুমি হঠাৎ ,,,
“” আমার ব্যাগ টা ছেড়ে গেছলাম,,,
“”” তুমি রুমে আসার আগে নক করবে না ,,,
“”” সরি স্যার,,, তবে আমি আপনাকে এমন ভাবি নি ,,,
“”” নিজের বউয়ের সাথে মেলামেশা করা কি খারাপ ,,
“”” মানে ,,
“”” রুহী আমার বউ আর রোজা আমার মেয়ে ,,,
“”” কি বলেন স্যার ,,
“”” তুমি যে এটা জানো কাউকে বলবে না ,,
“”” ঠিক আছে স্যার ,,, আমি আসলাম ,,,
“”” হুম ,,,

নয়ন চলে যাবার পরে রুহী আসলো,,
“”” আমি গেলাম ,,, ,,,
“”” এখনি যাবে,,,
“”” হুম ,, ঐ ব্যাগে খাবার আছে ,,, খেয়ে নিও,,
“”” আচ্ছা ,,,,
“”” উমমমমম্মাআআআ,,,
“”” এটা কি হলো,,,
“”” বুঝো নাই ,,, বুঝিয়ে দিবো,,
“”” না থাক লাগবে না ,, আপনার মেয়ে দেখলে সমস্যা হবে ,, ভাববে আম্মু আংকেল এর সাথে কি করে এসব ,,,,
“”” আংকেল বলাতে ঐ দিন অনেক রাগ করছো তাই না,,, রোজা,,, আম্মু এদিকে আসো,,,
“”” হ্যাঁ আম্মু ,,
“”” তোমার বাপিকে দেখবে ,,,
“” হুম ,, কিন্তু বাপি তো কাল আসবে ,,,
“”” এই দেখো তোমার বাপি,,,
“”” ও আমার বাপি,,,
“”” হুম আম্মু ,,,
“”” তুমি আমার বাপি,,,,
( কিছু বললাম না শুধু রোজা আর রুহীকে বুকে জড়িয়ে নিলাম,,, )

“”” কাল তাড়াতাড়ি চলে এসো,,,
“”” কাল আসবে কিন্তু বাপি,,,,
“”” আচ্ছা আম্মু আসবো,,, গাড়ি নিয়ে যাও,, আমি ড্রাইভার কে বলে দিচ্ছি ,,,

রুহী মিষ্টি একটা হাসি দিয়ে চলে গেল ,,,

কিন্তু চিন্তায় পড়ে গেলাম আমি ,,
এমন একটা মেয়েকে কষ্ট দেওয়া কি ঠিক হবে ,,,
মেয়েটা তো আমায় অনেক ভালোবাসে ,,,,
কি করবো???

পরবর্তী পর্বটা আপনাদের মতামত অনুযায়ী লিখবো,,,
সবাই সবার মতামত জানাবেন,,,
.
..

….

..
.
সিনিয়র বউ Part-10

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *