সিনিয়র বউ এর রোমান্টিক অত্যাচার।

সিনিয়র বউ এর রোমান্টিক অত্যাচার।
আমি ওয়াছিফ।অনাস পরিক্ষা দিয়ে রেজাল্টের অপেক্ষা করছি।এখন কাজ নেই তাই একটু বেশিই ঘুমাই।আমরা দুই ভাই।বড় ভাইয়া চাকরি করে।
ভাই,ভাবি,আম্মু,আমি আর মামনি মানে ভাইয়ার মেয়ে তাসফিয়া।
১০টাই ঘুম থেকে উঠছি।তখন আম্মু আর ভাবি কথা বলছে
ভাবিঃআম্মু আমি আর একা একা ঘরের সব কাজ পারছি না।এখন একজন আনার ব্যাবস্থা করো।
আমিঃবুয়া আনো।
ভাবিঃবুয়া আনবে!তোর ভাইয়া বাইরের কারো হাতের রান্না খাই না।আর বাইরের লোক দিয়ে ভরসা নাই।
আমিঃতাইলে তোমার বুইনরে আনলেই তো হয়😂😂😂
ভাবিঃএকদম ঠিক বলেছিস😊।ওকে একেবারে এবাড়িতে আনবো।
আমিঃএকেবারে আনবা মানে?😨
ভাবিঃতোর আর সামিয়ার বিয়ে ঠিক করেছি আমরা।
(সামিয়া আপু আমার সিক্রেট ক্রাস😍😍😍)
আমিঃঐ জল্লাদের কাছে আমারে তুলে দিয়ো না প্লিজ (আমার মনে মনে লুঙ্গি ডান্স হচ্ছে)
ভাবিঃথামতো!আমি কি শিশু নাকি।কিছু বুঝি না মনে হচ্ছে?যা যা রুমে গিয়ে মনের সুখে নাচ😂😂😂
আমিঃতু,তু,তুমি কেম্নে বুঝলা?
ভাবিঃসব বুঝি।যা যা রুমে যা।

(রুমে এসে হাল্কা পাতলা নেচে নিলাম।নাচতে নাচতে মাথায় প্রশ্ন আস্লো সামিয়া আপুর যদি বফ থাকে?যদি সে বিয়েতে রাজি না থাকে?যদি বিয়ের দিন পালিয়ে যায়?😭।এসব ভাবতে ভাবতে পাগোল হয়ে যাচ্ছিলাম।তখন মনে হলো আমি মনে হয়আপুকে ভালোবেসে ফেলছি😭।টেনশন করতে করতে বাইরে গেলাম তবে স্বস্তি পেলাম না।তখন মনে হল আমার ভয় কাটাইতে হলে আমার বেস্ট ফ্রেন্ড মানে আমার ভাবির সাথে সব খুলে বলতে হবে।বাসায় গেলাম সন্ধার একটু পর।হাত মুখ ধুয়ে ভাবির রুমে।
গিয়ে দেখি ভাইয়া আর ভাবি হাত ধরা ধরি করে বসে আছে।আমারে দেখে লাফ দিয়ে সরে গিয়ে আমারে প্রশ্ন
ভাইয়াঃনক করে আসতে পারিস না?
ভাবিঃওরে বকছো কেন?কিছু বলবি ওয়াছিফ?
আমিঃহ্যা ভাবি।
ভাবিঃতুই বিয়ে তে রাজি তো?(একটু ভয় পেয়ে)
আমিঃতোমার সাথে একটু কথা আছে।বাইরা আসবা?
ভাইয়াঃএখন ভাই পর?
আমিঃতাইলে তোমাদের সাম্নেই বলি?
ভাবিঃবল।

[ads2]

আমিঃভাবি আমি মনে হয় সামিয়া আপুরে ভালোবেসে ফেলেছি।সকাল থেকে একবারও ওর কথা ভুলতে পারি নি।
ভাবিঃদেখেছো আমার বোনের জাদু?আমার দেবরজি প্রেমে পড়েছে।😂😂😂
আমিঃভাবি মজা নিয়ো না প্লিজ।আমার খুব টেনশন হচ্ছে😭😭😭
ভাবিঃকি টেনশন?

ভাইয়াঃকি আবার!সামিয়ার বয় ফ্রেন্ড আছে কিনা এই সব।আসলে আমার ভাই তো।তোমার সাথে বিয়ে ঠিক হওয়ার সময়ও আমার একই টেনশন ছিল
আমিঃসত্তি ভাইয়া তুমি আমারই ভাই।
ভাবিঃএখন আমি বুঝি কেউ নই?(অভিমানী সুরে)
আমিঃতুমি না থাকলে রাস্তা ক্লিয়ার হইতো বা তো।তুমি তো আমার বেস্ট ফ্রেন্ড
ভাবিঃহইছে হইছে।হাওয়া দেয়া লাগবে না।আর হ্যা তোর টেনশনের কোনো কারন নেই।আর ৩দিন পর তোর বিয়ে।ডিনার করে লিস্ট করতে হবে।
আমিঃআচ্ছা।ভাবি লাভ য়্যু।😘
ভাবিঃযা ছ্যামড়া।😂
রাতের খাওয়া শেষে কাদের কাদের দাওয়াত দিতে হবে লিস্ট করে নিলাম।

(আমার রুমে এসে মনের আনন্দে দিলাম ঘুম।আর মাত্র কয়েকটা দিন।আস্তে আস্তে প্রতিক্ষার ঘন্টা পেরিয়ে গেল।আজ আমার বিয়ে।অনেক ব্যস্ত।আমরা গেলাম সামিয়া আপু থুক্কু সামিয়াদের বাসায়।ভাবি আমাদের সাথেই গেল।আমার গাড়িতে তাসফিয়া,ভাইয়া,আমি আর ভাবি।
তাসফিয়াঃতাত্তু আমলা কাদেল বাতায় দাত্তি?
ভাবিঃতোমার ছোট আম্মুর বাসায় মামনি।
তাসফিয়াঃও।আমি ছোত আম্মুকে তিনি।আমাল থামিয়া খালামনি।
আমিঃ😶😶😶😶😶
সামিয়াদের বাসায় চলে আসলাম।বিয়ের পিড়িতে বসে আছি।কাজি বিয়ে পড়াচ্ছে।এবার কবুল বলতে হবে।কিন্তু একি আমার অবস্থা খারাপ।লজ্জায় কবুল বলতে পারছি না।😭😭।আমি আরো অবাক হইলাম সামিয়ার কবুল বলার গতি দেখে।একে বারে কবুল,কবুল,কবুল😂😂😂
বিয়ে পড়ানো শেষ।আমি এবার টাস্কি খাইলাম বিদায়ের সময়।সে কি কান্না।
বাসায় আসলাম।আসার সাথে সাথে
আম্মুঃদেখি দেখি আমার ছোট মেয়েকে।
সাথে সবাই আমারে লাত্তি ঘুষি মানে ধাক্কা দিয়ে সরাইয়া আমার বউকে নিয়ে ব্যস্ত।এই ঘটনা দেখে একটা জিনিস বুঝলাম যে আর যাই হোক এবার এবাড়িতে আমার আর কোনো দাম নেই।মনের দুঃখে ছাদে গিয়ে Atif Aslamএর গান গুলো এক এক করে শুনছি।এমন সময়
ভাবিঃএই তোর কি বুদ্ধি হবে না?
আমিঃকেন?
ভাবিঃতোর বউ ঘরে বসে আছে।যা যা ঘরে যা।
আমি বেচারা আর কিছু না বলে ঘরে গেলাম।আমি ঘরে গিয়েই টাস্কি খাইলাম।বউ আমার ইয়া বড় এক ঘোমটা দিয়ে বসে আছে।আমি শুনছি বাসর রাতে বউ স্বামীকে সালাম করে পিয়ার ভালোবাসা করে।কিন্তু আমার কপালে এমন কিছুই নাই।😭😭😭
আমি খাটের দিকে যাচ্ছি এমন সময়
সামিঃএই ওযু করে আই।যা😡
আমিঃমানে?
সামিঃআমরা নতুন জীবন শুরু করতে যাচ্ছি।তাই আল্লাহর কাছে দোয়া করতে হবে।যা যা নামায পড়তে হবে।যা যা😡
আমিঃআচ্ছা।
ওযু করে দুজনে নামায পড়ে নিলাম।বৌ আমার আবার খাটে গিয়ে ঘোমটা দিয়ে বসে আছে।
আমি খাটের কাছে যাচ্ছি।এমন সময়
সামিঃএই নে তোর বালিশ।এবার সোফায় ঘূমা।
আমিঃআপ্নারে দেখতেও পারলাম না।আর আপনি কইতেছেন দূরে যায়তে?
সামিঃছোট মানুষের অত দেখতে নেই।যা যা।ঐখানে ঘুমা।😡😡
আমিঃআমি শুনেছি বাসর রাতে বর বউ কত কি করে।আর আমারে এত দূরে থাকতে হচ্ছে।ওসব করা দুরের কথা আমি তো আমার বউকেও দেখতে পারলাম না।😭😭😭
সামিঃবাবা!পিচ্চি দেখি সব বুঝে😂😂😂। তা পিচ্চি তুই কি সত্যি বউকে দেখবি?
আমিঃহুম।😂
সামিঃদেখতে দিতে পারি তবে একটা কন্ডিশন আছে।
আমিঃআমি সবকিছুতে রাজি।😂😂একটু কাছে আসি?
সামিঃদেখতে পারবা বাবু কিন্তু ছুতে পারবি না।
আমিঃএ কেমন বিচার?😭বউকে দেখতে পারবো তবে ছুতে পারব না😭😭😭?ভাবি এ তুমি কি করলা?(চিৎকার করে)
সামিঃচেচাইলে দেখতেও পারবি না😡
আমিঃনেই মামার থেকে কানা মামা ভালো।
সামিঃগুড বয়।এবার এখানে আই।
আমি খাটে উঠে।সামিয়ার ঘোমটা ঊঠাইলাম।
আমিঃমাশায়াল্লাহ😍😍😍।কি সুন্দর😍😍😍
সামিয়াঃঅনেক হইছে এখন যা।
আমিঃআর একটু দেখি।নিজের বউরেই তো দেখছি অন্য কাউকে তো না😂😂
সামিঃহইছে হইছে।যা যা দূরে যা।তোরে দিয়ে ভরসা নাই।
আমিঃএভাবে তাড়াই দিতেছেন😓
সামিঃ(আমার গাল টেনে)ওলে লে লে বাবুতা কষ্ট পাইনা।এখন দূরে যা😡😡😡😡
আমিঃএক্টা কথা বলবো?
সামিঃবল।
আমিঃআপ্নি কি বিয়েতে রাজি ছিলেন না?আপনার কি বয়ফ্রেন্ড আছে?আপনার কি ডিভোর্স চাই?😩😩😩
ঠাসসসসস।ঠাসসসসসস।আমার গালে ২টা ঠাটিয়ে চড়।
আমিঃমারলেন কেন😭😭😭
সামিঃতুই ডিভোর্স এর কথা মুখে আনলি কেন?😠😠😠
অন্য সবাই থাপ্পড় খাওয়ার পর ব্যাথা সহ কস্ট পাই।আমার হলো না।তার করন আপ্নারা দেখলেনই।
আমিঃসরি।
সামিঃঅলে অলে বাবুতা।লেগেছে বুঝি।I am sorry.বাবু।আসলে ডিভোর্স এর কথা শুনে রাগ হয়ে গেছিলো।😣😣সরি বাবুতা
আমিঃঈটস ওকে😊।আমি আপনার কাছে ঘুমাই😁?
সামিঃযা যা।ভাগ।ঊহ একটু আদর দেখাইছি সেই সুযোগ কাজে লাগাইতে আসছে।যা যা।
আমিঃচলেন না একটু গল্প করি।
সামিঃকি গল্প করব?
আমিঃএই ফ্যামিলি প্লানিং।😂
সামিঃকি বললি তুই?😠
আমিঃআরে ওগুলা না।আপনি যা ভাবছেন তা না😂।আমি বলতে চাচ্ছি আমার ফ্যামিলির সাথে কি রকম ব্যবহার করবেন।
সামিঃতোর ফ্যামিলি মানে?😠এটা আমার ফ্যামিলি।তোর ভাবি আমার আপন বোন
তোর ভাতিজি আমার আপন বোনের মেয়ে।তোর ভাই আমার দুলাভাই।তোর আম্মু আমার আম্মু।সুতরাং তোর ফ্যামিলি তোর থেকেও বেশি আপন আমার কাছে।আর তোর ফ্যামিলি আমার ফ্যামিলি কি?আমরা তো একই ফ্যামেলি😊।আর আমি তুই আলাদা নাকি😊?
আমিঃআহ😍।কি শুনাইলা বাবু😘
সামিঃওই তুই আমারে তুমি কইলি কেন?আমি তোর বড়।সো রেস্পেক্ট দে।আর যদি আপুরে কিছু কইচ তাইলে তোর খবর আছে।আর যা এখন ঘুমা।
আমিঃআপ্নার সাথে ঘুমাই?😊
সামিঃযাবি না থাপ্পড় দিবো😠
আমিঃযাচ্ছি যাচ্ছি😭😭😭
কি আর যায় ঘুমাই😩।কবে যে বউকে কাছে পাব কে জানে😩😩

শেষ পার্ট এখানে

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *